প্রথমার্ধেই পাঁচ গোল, গোল্ডেন বুটের দৌড়ে হ্যারি কেন

নিজনি নভগোরড: তিউনিশিয়ার বিরুদ্ধে ২-১ গোলে জয় দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করেছে ইংল্যান্ড৷ প্রথম ম্যাচেই জোড়া গোল করেছেন অধিনায়ক হ্যারি কেন৷ ‘জি’ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ধ্বংসাত্মক ফর্মে থ্রি লায়ন্সরা৷ পানামাকে প্রথমার্ধেই ৫ গোলের মালা পরিয়েছে ইংল্যান্ড৷ প্রথমার্ধেই জোড়া গোল করে হ্যারি কেন গোল্ডেন বুটের দৌড়ে ছুঁয়ে ফেলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ও রোমেলু লুকাকুকে৷

ম্যাচের ৮ মিনিটের মাথায় সেট পিস থেকে গোলের খাতা খোলে ইংল্যান্ড৷ ট্রাইপারের কর্ণার থেকে হেডে গোল করেন জন স্টোনস৷ ইংল্যান্ডের জার্সিতে ম্যাঞ্চেস্টার সিটির তারকা ডিফেন্ডারটির এটি প্রথম গোল৷

২০ মিনিটে লিংগার্ডকে নিজিদের বক্সে ফাউল করেন পানামার এসকোবার৷ রেফারি পেনাল্টির নির্দেশ দিলে ২২ মিনিটের মাথায় স্পট কিক থেকে ইংল্যান্ডের ব্যবধান বাড়িয়ে ২-০ করেন হ্যারি কেন৷ রাশিয়া বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড অধিনায়কের এটি তৃতীয় গোল৷

- Advertisement -

৩৬ মিনিটে নিজেই বল তৈরি করে দুরন্ত ফিনিশিং টাচ লিংগার্ডের৷ মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে গিয়ে স্টার্লিংকে বাড়িয়ে দেন ম্যান ইউ তারকা৷ স্টার্লিং সুযোগ বুঝে চলতি বল লিংগার্ডের কাছেই ফেরত পাঠান৷ নিখুঁত নিশানায় পানামার জালে বল জড়িয়ে ইংল্যান্ডের লিড বাড়িয়ে ৩-০ করেন তিনি৷ বিশ্বকাপের ইতিহাসে লিংগার্ডের এটি প্রথম গোল৷

৪০ মিনিটে স্টার্লিংয়ের হেড পানামা গোলরক্ষক প্রতিহত করলে ফিরতি বল আলতো হেডারে জালে জড়িয়ে দেন স্টোনস৷ ম্যাচে তথা জাতীয় দলের এটি ছিল স্টোনসের দ্বিতীয় গোল৷ জোনসের দ্বিতীয় গোলের সুবাদে পানামার বিরুদ্ধে ইংল্যান্ড ৪-০ গোলে এগিয়ে যায়৷ ১৯৬৬ সালের পর ইংল্যান্ড এই প্রথম বিশ্বকাপের কোনও ম্যাচে চারটি গোল করে৷ যদিও নির্ধারিত ৯০ মিনিটের মধ্যে এই প্রথমবার তারা চারবার প্রতিপক্ষের জালে বল জড়াতে সক্ষম হয়৷ সেটাও আবার ম্যাচের প্রথমার্ধেই৷

৪৩ মিনিটে হ্যারি কেনকে বক্সের মধ্যে গোডোয় ফাউল করলে পেনাল্টি পেয়ে যায় ইংল্যান্ড৷ ইনজুরি টাইমে (৪৫+১ মিনিট) স্পট কিক থেকে গোল করে ইংল্যান্ডের হয়ে পাঁচ গোলের বৃত্ত পূর্ণ করেন হ্যারি কেন৷ একই সঙ্গে তিনি গোল্ডেন বুটের দৌড়ে ছুঁয়ে ফেলেন রোনাল্ডো ও লুকাকুকে৷ চলতি বিশ্বকাপে এটি কেনের চতুর্থ গোল৷

শেষবার বিশ্বকাপের ম্যাচে প্রথমার্ধেই পাঁচটি গোল হয়েছিল ২০১৪ সেমিফাইনালে৷ আয়োজক ব্রাজিলের বিরুদ্ধে বিরতিতে ৫-০ ব্যবধানে এগিয়ে ছিল জার্মানি৷ শেষমেশ জার্মানি ম্যাচ জেতে ৭-১ গোলে৷

Advertisement ---
---
-----