নির্বাচন কমিশন যেন ঋণখেলাপিদের প্রার্থী পদ অমুমোদন না করে : ব্যাংক ইউনিয়ন

নয়াদিল্লি: দিল্লি প্রদেশ ব্যাংক ওয়ার্কাস ইউনিয়ন নির্বাচন কমিশনের কাছে আর্জি জানিয়েছে যেন লোকসভা ভোটের প্রার্থীরা ব্যাংকের কাছ ‘এনওসি’ নিয়ে জমা করে৷ ওই ‘এনওসি’মারফত ব্যাংক জানিয়ে দেবে প্রার্থী কখনও তিনি ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয়নি৷ এই মর্মে ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন নির্বাচন কমিশনের দফতরে ই-মেল পাঠিয়েছে ৷ যাতে নিশ্চয়তা দেওয়া হবে সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক নেতাটি কোনও ভাবে ঋণ খেলাপি নয়৷

এই সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক অশ্বিনী রানা জানিয়েছেন, যেখানে গোটা দেশে ব্যাংকগুলি যখন অনুৎপাদক সম্পদের ভারে জর্জরিত তখন তাঁরা সঠিক সংকেত পাঠাতে প্রার্থীদের কাছ থেকে জানতে হবে তিনি অথবা তাঁর পরিবার কোও ভাবে ঋণ খেলাপি অথবা ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ কিনা৷

আরও পড়ুন : বাংলায় প্রথম পি ডব্লিউ ডি অবজারভার নিয়োগ করল কমিশন

- Advertisement -

তিনি মনে করিয়ে দেন নির্বাচন কমিশন তো আগেই সুপারিশ করেছিল যদি ‘ইউটিলিটি বিল’ খেলাপি হয় তাহলে প্রার্থী পদ নাকট৷ তখন নির্বাচন কমিশনের প্রস্তাব ছিল, কোনও প্রার্থীর বাড়ি ভাড়া , বিদ্যুতের বিল এবং জলের বিল ঠিকমতো না দেওয়া থাকে তাহলে তাঁর প্রার্থী পদ বাতিল হবে৷ তবে সরকার এভাবে প্রার্থী পদ বাতিলের প্রস্তাব মানতে চায়নি৷

সাধারণত যখন কোনও ব্যক্তি ঋণের জন্য আবেদন করে তখন ঋণদাতা সংস্থা তার ঋণ পরিশোধের ইতিহাস অথবা ‘সিবিল স্কোর’ পরীক্ষা করে দেখে নেয়৷ সাধারণ মানুষকে যেখানে এমন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হয়৷ সেই একই প্রক্রিয়া কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তির উপর প্রয়োগ করা হলে অনুৎপাদক সম্পদ নিয়ন্ত্রণে সুবিধা হবে৷