নয়াদিল্লি: কেরলের মানুষ হয়ত ২০১৮-র জুলাই মাসটাকে কোনোদিন ভুলতে পারবে না। ইতিহাস সাক্ষী এমন কষ্টের দিন কেরলের মানুষ আগে কোনদিন দেখেনি। মরশুমের এক বৃষ্টি কেড়ে নিয়েছে ৪০০র বেশী প্রাণ। কয়েক লক্ষ মানুষ ভিটে মাটি ছাড়া। কবে মুলস্রোতে ফিরবে জীবন কেউই জানে না। তবে এত কিছুর মধ্যেও মানবিকতা একটা রুপোলি রেখা এঁকেছে। উত্তর থেকে দক্ষিন, পূর্ব থেকে পশ্চিম ভারতের সব জায়গার মানুষ কেরলের এই কষ্টের দিনে পাশে দাঁড়িয়েছে। কেরলের বন্যা শত কান্নার মধ্যেও দেখেছে মানবিকতা। যদিও পরিবেশবিদরা বলছেন, মানুষ নিজের কৃতকর্মের মাশুল দিচ্ছে।

তবে কেরলের কষ্ট কাছে এনেছে বিশ্বজুড়ে সমস্ত জাতি-সম্প্রদায়ের মানুষকে। এখনও মানবিকতার কার্পণ্য দেখেনি কেরল। কাতার, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমীরশাহির পর এবার পাকিস্তান। কেরলের বন্যা যেন প্রমাণ করছে মানবিকতা সমস্ত ভেদই মুছে ফেলতে পারে।

Advertisement

পাকিস্তানের সুপার লিগ দল ‘পেশোয়ার জাল্মি’র কর্ণধার কেরলের পাশে দাঁড়াতে চেয়ে ঘোষণা করেছেন, তাঁরা ৫০০০ তাঁবু ও চিকিৎসাসামগ্রী দিয়ে কেরলকে সাহায্য করতে চায়। ভারতের শত্রু দেশ কেরলের এই দুর্দিনে বহু মানবিকতার গল্প বুনেছে। সংযুক্ত আরব আমীরশাহিতে থাকা পাকিস্তানিরাও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। পাকিস্তানের ক্রিকেটার হাসান আলি কেরলের মানুষদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার সাইদ আফ্রিদি কেরলের মানুষের পাশে থাকতে চেয়েছেন। পাকিস্তানে বসবাসকারী বহু প্রবাসী তাদের একদিনের বেতন কেরলের মানুষের হাতে তুলে দিতে চেয়েছেন। একটি ভিডিওতে কেরলের মানুষের প্রতি বার্তা দিতে তাদের দেখা গেছে।

ইউরোপের বিভিন্ন ফুটবল ক্লাব থেকে সাহায্য এসেছে কেরলের জন্য। বার্সেলোনা ফ্যান ক্লাব, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড, লিভারপুল ফ্যান ক্লাব কেরলের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।
কেরলের বন্যা যেন প্রতিদিন প্রমান করছে মানুষ আজও মানুষের জন্য বাঁচে।

----
--