প্রত্যেকদিন মারা যাচ্ছে পাঁচটি করে গরু! এখন কোথায় গোরক্ষকরা?

চেন্নাই: গরুদের সুরক্ষার জন্য একদিকে যেমন চলছে নিত্য নতুন ব্যবস্থা, তেমনই তামিলনাড়ুতে গত পাঁচ মাসে দিনে পাঁচটি করে গরু মারা যাচ্ছে। তামিলনাড়ুর খরার ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন কৃষকরা। সেই নিয়ে তারা অনবরত বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছে। সেরকমই তামিলনাড়ুর নীলগিরি জেলায় একের পর এক গরু যাচ্ছে যথেষ্ট পরিমাণে খাবার আর জল না পাওয়ায়।

মোয়ার, মাসিনগুড়ি, এবং বালাকোলা গ্রাম মিলিয়ে প্রায় মোট ৩০০টি গরু মারা গিয়েছে মোয়ার গ্রামের কৃষক আর নারায়ণা জানান গত ৬ মাসে তার ৫০টি গরু খরার জন্য সবুজ শস্য ও জল না পেয়ে মারা গিয়েছে। মাসিনগুড়ির আরও এক কৃষক জানিয়েছেন গত সপ্তাহে তার ২০টি গরু মারা গিয়েছে। এই ব্যাপারে প্রশাসনের কাছে জানানো হলেও এখনও অবধি কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি এবং গরুগুলির ময়নাতদন্তও করা হয়নি। অনেকসময় জেলাপ্রশাসন ময়নাতদন্তের জন্যও চিকিৎসকদের টাকা দেয় না বলে জানান কৃষকরা। তাই চিকিৎসকরা আসেন না।

মোয়ারের আর নারায়ণ জানান, এই গরুগুলি তাদের রোজগারের উৎসই শুধু নয়, জীবনের অংশ। গত বছরই গরুদের খাওয়ানোর জন্য সবুজ শস্য কিনতে প্রায় ৮ লক্ষ টাকা খরচ করেছিলেন তিনি। কিন্তু তাও বাঁচানো যায়নি।

দেশের একদিকে চলছে ‘গো-মাতা’ কে রক্ষা করার বিভিন্ন পদ্ধতি। তৈরি হচ্ছে গরুদের আধার কার্ড। কিন্তু তামিল নাড়ুতে যে একের পর এক গরু মারা যাচ্ছে সে ব্যাপারে গো-রক্ষকদের কোনও নজর নেই বলে অভিযোগ কৃষকদের।

----
-----