ছয় মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগে ধৃত ছাত্রলিগ নেতা

ঢাকা: হুমকি দিয়ে ছয় মহিলাকে ধর্ষণ ও সেই ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে অবশেষে গ্রেফতার হল আওয়ামি লিগের ছাত্র নেতা৷ ঘটনার জেরে অস্বস্তিতে দেশের ক্ষমতাসীন দল৷ ধৃতের নাম আরিফ হাওলাদার৷ অভিযোগ, এই ছাত্রলিগ নেতা একের পর এক মহিলাদের ধর্ষণে অভিযুক্ত৷

টানা দেড়মাস পালিয়ে থাকার পর অবশেষে ধরা পড়েছে আরিফ৷ পুলিশ জানিয়েছে, আরিফ এতদিন চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ এলাকায় গা ঢাকা দিয়ে ছিল। মঙ্গলবার ফরিদগঞ্জ থেকে শরীয়তপুর আসার পথে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

আরিফ হাওলাদার অন্তত ছয় মহিলাকে ধর্ষণ করে তাদের ভিডিও মোবাইল ফোনে ধারণ করে তা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়েছিল৷ লোকলজ্জার ভয়ে ভুক্তভোগী মহিলারা ঘটনা কাউকে না জানালেও গত ১৫ অক্টোবর থেকে ধর্ষণের এই ভিডিও স্থানীয়দের মোবাইলে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর এক মহিলা গত ১১ নভেম্বর আরিফের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেন।

- Advertisement -

পরিস্থিতি আঁচ করে আওয়ামি লিগ তড়িঘড়ি আরিফকে সাংগঠনিক পদ থেকে বহিষ্কার করে৷ জানা গিয়েছে, শরীয়তপুরে স্থানীয় একটি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী আরিফ ২০১৫ সালে নারায়ণপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পায়৷

আরিফের বিরুদ্ধে মামলাকারী গৃহবধূ বলেন, ‘আমার মতো অনেক মেয়ের সর্বনাশ করেছে আরিফ। তাই আমি মামলা করি। আরিফ গ্রেফতার হয়েছে শুনেছি। আরিফ গ্রেফতার হওয়ায় আমি কিছুটা হলেও শান্তি পাচ্ছি। আমি ওর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। এমন শাস্তি দেয়া হোক, যাতে এ ধরনের ঘটনা আর কেউ না ঘটাতে পারে।’

Advertisement
---