এলাহাবাদ: উত্তরপ্রদেশে কসাইখানা বন্ধ হওয়ার পর সমস্যার মুখে পড়েছে বহু মানুষ। যারা আমিষ খান তাদের যেমন খাওয়া দাওয়ায় সমস্যা হচ্ছে তেমনই রোজগার গেছে বহু মানুষের। উত্তরপ্রদেশ থেকে প্রচুর পরিমানে রফতানি হত মাংস। কসাইখানা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় প্রায় ৪ হাজার কোটি টাকার মাংস রফতানি করতে ব্যর্থ হয়েছে রাজ্য। আর এর সঙ্গেই প্রায় ৩০ হাজার লোক বেকার হয়ে পড়েছে। জানিয়েছে রফতানিকারীরা।

জানা গিয়েছে, ২০১৬-র এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রায় ৭২৮৫ টাকার মহিষের মাংস উত্তরপ্রদেশ থেকে রফতানি হয়েছে। এই রফতানি কাজের সঙ্গে যারা যুক্ত ছিলেন আর যারা কসাইখানায় কাজ করতেন তারা বেকার হয়ে পড়েছেন।

Advertisement

উত্তরপ্রদেশে যোগী সরকার আসার পর রাজ্যের ৪১ টি মাংস রফতানি কেন্দ্রর মধ্যে বন্ধ হয়ে গিয়েছে ১৭টি। যেকটি রয়ে গেছে সেখান থেকে মানুষ মাংস রফতানি করতে ভয়ও পাচ্ছে গোভক্তদের কারণে। জানিয়েছেন অল ইন্ডিয়া মিট অ্যান্ড লাইভস্টক এক্সপোর্টারের সম্পাদক ফৌজন আলাভি।
তিনি জানিয়েছেন যে এই মহিষের মাংস ৭০টি দেশে রফতানি করা হত। এর মধ্যে আছে ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, এবং মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কিছু দেশ।

আলিগড় মাংস রফতানি কেন্দ্রের ম্যানেজার আয়াজ সিদ্দিকি জানিয়েছেন নতুন সরকা আসার আগে দিনে প্রায় ২০০টন মাংস রফতানি করা হত। যার দাম প্রায় ৪০ কোটি টাকা। আর এখন দিনে মাত্র ৩৫ টন মাংস রফতানি হয়। তাই রফতানি ব্যবসা ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে।

----
--