সত্য সেলুকাস! গোরুর জন্য অ্যাম্বুলেন্স থাকলেও প্রান্তিক কৃষক ব্রাত্য

ছত্তিশগড়: এদেশে গোরুর জন্য অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা চালু হলেও এখন বঞ্চিত বহু সাধারণ প্রান্তিক মানুষ৷ আজও রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্স পেল না উড়িষার কান্ধামালের হতদরিদ্র পরিবার৷ কার্যত বাধ্য হয়েই ট্রেচারে করে প্রায় দেড় কিলোমিটার পথ পারিয়ে রোগীকে নিয়ে রওনা হলেন রোগীর পরিবার৷ বৃহস্পতিবার সকালে এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই ফের একবার বেরিয়ে এল গোটা দেশের প্রান্তিক মানুষের দুরবস্থার করুণ কাহিনি৷

কেননা, গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে দেশকে ‘উন্নয়নে’র মুখে কালি ছিটিয়ে নিদারুণ ছবি প্রত্যক্ষ করেছিল গোটা বিশ্ব৷ অর্থের অভাবে মৃত স্ত্রীকে কাঁধে নিয়ে দানা মাঝি পাড়ি দিয়েছিলেন দীর্ঘ পথ। আলোড়ন ফেলে দিয়েছিল গোটা ঘটনা৷ বছর ঘুরতে না ঘুরতেই ফের একই ঘটনার সাক্ষী গোটা দেশ৷ অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা না পেয়ে অসুস্থ ছেলেকে খাটিয়ায় বেঁধে নদী পেরোলেন অসহায় বাবা। সম্প্রতি গুয়াহাটির এই ঘটনায় আরও একবার প্রকাশ্যে আনল দেশের বর্তমান আর্থিক ব্যবস্থা৷ আজ ফের হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের চূড়ান্ত গাফিলতির সৌজন্যে অ্যাম্বুল্যান্স পেলেন না উড়িষার কান্ধামালের প্রান্তিক কৃষক পরিবার৷ রোগীকে নিয়ে ব্যাধ হয়েই ট্রেচারের করে প্রায় দেড় কিলোমিটার অতিক্রমণ করল রোগীর পরিবার৷ এই ঘটনার দেখে পরে অবশ্য পুলিশ কিছুটা উদ্যোগ নেয়৷ ব্যবস্থা কারা হয় ভ্যান৷ যদিও বিষয়টি সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশ হওয়ার পর তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নেওয়ার উদ্যোগ নেয় স্থানীয় প্রশাসন৷  তবে, লাগাতার দেশের বিভিন্ন প্রান্তে নিদারুণ বাস্তবতা প্রোটক হলেও কুছ পরওয়া নেই৷ দেশের প্রান্তিক মানুষের জন্য পরিষেবা না থাকলেও এদেশে গোরুর জন্য চালু আছে অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা৷ সত্য সেলুকাস, কী বিচিত্র এই এদেশ!

Advertisement ---
-----