ঠেলাগাড়িতে সবজি বিক্রি করলেন কৃষিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার, রামপুরহাট: ঠেলাগাড়িতে ডাঁই করে রাখা বাঁধাকপি, পাটশাক৷ বাঁধাকপি পিছু দাম ১২টাকা৷ পাটশাক ১০ টাকা৷ উপছে পড়ছে ক্রেতার ভিড়৷

কারণ, বিক্রেতা যে স্বয়ং রাজ্যের কৃষি মন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এমনই ঘটনার সাক্ষী থাকল বীরভূমের রামপুরহাট-২ নম্বর ব্লকের রামপুরহাট টাউন হল প্রাঙ্গণ৷

আরও পড়ুন: বিরল প্রজাতির পেঁচা উদ্ধার বালুরঘাটে

- Advertisement -

মন্ত্রীর কাছ থেকে সবজি কিনলেন রামপুরহাট পুরসভার পুরপ্রধান অশ্বিনী তেওয়ারি, প্রাক্তন বিধায়ক অসিত মাল, তৃণমূলের জেলা সাধারণ সম্পাদক ত্রিদিব ভট্টাচার্য৷ কিনলেন সাধারণ মানুষও৷

এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা রাজকুমার বাদ্যকর বলেন, ‘‘আমি দুটো বাঁধাকপি আর এক আঁটি পাট শাক কিনলাম৷ এভাবে স্বয়ং কৃষি মন্ত্রীর কাছ থেকে সবজি কিনব, স্বপ্নেও ভাবিনি৷’’ হঠাৎ মন্ত্রীকে কেন ঠেলাগাড়িতে সবজি বিক্রি করতে হল? আশিসবাবুর কথায়, ‘‘মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মতো রাজ্যের কোনও ফার্মই ফেলে রাখা হবে না৷ তাই প্রতিটি ফার্মে চাষ শুরু হয়েছে৷ সাধারণ মানুষ কৃষি দফতরের ফার্মের সেই ফসল যাতে কেনেন, তাঁদের উৎসাহ দেওয়ার জন্যই আমি এদিন ঠেলাগাড়িতে সবজি বিক্রি করলাম৷’’

আরও পড়ুন: মাধ্যমিক পরীক্ষার তোয়াক্কা না করে মাইকে ভোটের প্রচার বিজেপির

গত বছর অক্টোবর মাসে রামপুরহাট-২ নম্বর ব্লকের দখলবাটি গ্রামের কৃষি ফার্ম পরিদর্শন করেছিলেন কৃষি মন্ত্রী৷ পরিদর্শন করতে গিয়ে মন্ত্রী দেখেন ফার্মটি ফাঁকা পড়ে রয়েছে৷ এরপরই নির্দেশ দেন এভাবে কৃষি ফার্ম ফাঁকা রাখা যাবে না৷ কিছু না কিছু চাষ করতেই হবে৷ এরপরই ওই ফার্মের জমি তৈরি করে বাঁধাকপি ও পাটশাক লাগানো হয়৷

রবিবার সেগুলি তোলা হয়৷ সেই সমস্ত সবজি ঠেলাগাড়িতে করে রামপুরহাট টাউন হল প্রাঙ্গণের সামনে বিক্রি করেন কৃষিমন্ত্রী৷ সাধারণ মানুষের কাছে মন্ত্রী আর্জি বলেন, ‘‘আমাদের উৎপাদিত ফসল কিনুন৷’’ রাজ্যে ১৯১টি কৃষি ফার্ম রয়েছে৷ মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে প্রতিটি ফার্মেই শুরু হয়েছে চাষ৷ সাধারণ মানুষের মধ্যে বিক্রি করা হবে সেই ফসল৷

আরও পড়ুন: ছেলেকে কুপিয়ে খুন করল বাবা