পঞ্চাশে বাজিমাত করতে মরিয়া মুর্শিদাবাদের ‘আমরা কজন’

স্টাফ রিপোর্টার, মুর্শিদাবাদ: পুজো কমিটির বয়সের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে ৫০ ফুট উচ্চতার দুর্গা প্রতিমা তৈরি করছে মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জের ‘আমরা কজন ক্লাব’। এবারে এই ক্লাবের সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষ৷ তাই ৫০ ফুট উচ্চতার প্রতিমা গড়ে এলাকাবাসীকে তাক লাগিয়ে দিতে চাইছেন উদ্যোক্তারা৷ মিশরীয় সভ্যতার আদলে তৈরি হচ্ছে প্রতিমা৷ মাটি, প্লাস্টার অফ প্যারিস, সিমেন্টের পাশাপাশি থাকছে কাগজ ও কাপড়ের কারুকাজ।

সুউচ্চ এই প্রতিমা গড়ার কাজ শুরু হয়েছে উল্ট রথের দিন থেকে৷ বহরমপুরের বাসিন্দা, মৃৎ শিল্পী পিন্টু চক্রবর্তী বলেন, ‘‘পঞ্চাশে পা রাখা সংস্থার প্রতিমার উচ্চতাও হচ্ছে পঞ্চাশ ফুট৷ উদ্যোক্তাদের আয়োজন সার্থক করতে নিখুঁতভাবে প্রতিমা গড়ার কাজ করছি।’’ প্রতিমার পাশাপাশি চমক থাকছে আলোকসজ্জাতেও৷ পুজোর কদিন সমগ্র এলাকা সেজে উঠবে চন্দননগরের আলোয়৷ আলোর মাধ্যমেই ফুটিয়ে তোলা হবে বিবিধ থিম৷ জাঁকজমকের পাশপাশি এলাকার দুঃস্থ শিশুদের মুখে হাসি ফোটাতে তাঁদের নতুন বস্ত্র বিতরণ করার পরিকল্পনা নিয়েছেন উদ্যোক্তারা। জিয়াগঞ্জ শহরের চুরি পট্টির এই পুজোর উদ্বোধন হবে চতুর্থীতে৷ উদ্বোধন করবেন সারগাছি রামকৃষ্ণ মিশনের মহারাজ স্বামী বিস্ময়ানন্দ৷

ফি বারের মতো এবারও উদ্যোক্তারা সাবেকিআনা বজায় রাখছেন৷ এলাকাবাসীর জন্য সপ্তমীতে খিচুড়ি, অষ্টমীতে পোলাও আর নবমীতে থাকছে ইলিশ মাছ। সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডল বজায় রাখতে ফি বারের মতো এবারও মণ্ডপ চত্বরে প্রতিদিনই অনুষ্ঠিত হবে সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা। ক্লাবের অন্যতম কর্তা প্রীতম দাস বলেন, ‘‘প্রতিমা দর্শনে মানুষ যাতে তৃপ্ত হন সেই চেষ্টায় করা হচ্ছে।’’

Advertisement ---
-----