গড়িয়াহাট মোড়ে ফের আগুন আতঙ্ক

প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ফের গড়িয়াহাট মোড়ে আগুন আতঙ্কে ছড়াল চাঞ্চল্য৷ জানা গিয়েছে, সরস্বতী পুজোর বিসর্জনের সময় বাজি পোড়ানোর সময় আগুনের ফুলকিতে একটি দোকানে আগুন লেগে যায়৷

দমকলের একটি ইঞ্জিনের চেষ্টায় ১৫ মিনিটের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে৷ কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর এখনও পাওয়া যায়নি৷ তবে এই আগুনকে ঘিরে মানুষের মনের আতঙ্ক ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে৷

ফাইল ছবি

প্রসঙ্গত, গত মাসেই গড়িয়াহাট মোড়ের বহুদিনের পুরনো গুরুদাস ম্যানসনে আগুন লেগে যায়৷ সিইএসসি-র ফিডার বক্সে অতিরিক্ত বিদ্যুৎ ওভার লোডের কারণেই গড়িয়াহাটের গুরুদাস ম্যানসনে আগুন লাগে বলে জানা যায়৷ অগ্নিকাণ্ডের ফরেন্সিক রিপোর্টে এমনটাই জানানো হয়েছে৷ ফিডার বক্সের অতিরিক্ত বিদ্যুৎ ওই বহুতলের মিটার বক্সে পৌঁছে যায়৷ তার থেকেই আগুন লাগে৷ বাড়িতে দাহ্য বস্তু থাকায় তা পরে ভয়াবহ আকার ধারণ করে৷

- Advertisement -

আগুন লাগার পরেই দেখা যায় এই ম্যানসনে অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা ছিল না৷ নজরদারি ছিল না বৈদ্যুতিক সরঞ্জামে৷ ফরেন্সিক পরীক্ষাতেও তার উল্লেখ রয়েছে৷ সেখানে গাফিলতিকেই দায়ী করা হয়েছে৷ রিপোর্টে বলা হয়েছে, ফিডার বক্স থেকে অতিরিক্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছিল৷ বহুতলে ছিল না কোনও এমসিবি৷ গুরুদাস ম্যানসনের মেইন সুইচ, গলে যাওয়া সামগ্রী পরীক্ষা করে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছন ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা৷

প্রতীকী ছবি

এই আগুন লাগার পরে প্রাণে বাঁচতে কোনও মতে প্রাণ হাতে নিয়ে রাস্তায় নেমে পড়েন ওই বহুতলের আবাসিকরা। আগুন ছড়িয়ে পড়ে নিমেষে৷ সবচেয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি হয় বহুতলটির ৪ তলায়। আগুন নেভাতে হিমশিম খেতে হয় দমকলকে। প্রায় ১০ ঘণ্টা ধরে দমকলের ১৯টি ইঞ্জিন ও একটা স্কাইম্যান ল্যাডারের চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে আসে আগুন। আগুনে পুড়ে যায় গুরুদাস ম্যানসনে অবস্থিত একটি শাড়ির দোকান সহ রেস্টুরেন্ট, ফ্ল্যাট সহ একাধিক দোকান৷

তবে বুধবারের আগুন বিশেষ ছড়িয়ে পড়তে পারেনি৷ দমকলের একটি ইঞ্জিন দ্রুতগতিতে সেইআগুন নিভিয়ে ফেলে৷