সর্দি-কাশির ধাত থাকলে এক বিশেষ আঙুলে পরতে হয় সোনার আংটি

প্রায় সব মেয়েই সোনার গয়না পরে থাকেন। বিশেষত ভারতীয় মহিলাদের মধ্যে সোনার পরার চল খুব বেশি। বিয়েতে সোনার গয়না বাধ্যতামূলক। কেউ মনে করেন নেহাত সৌন্দর্য, কেউ মনে করেন সম্পদ। তবে সোনা কমবেশি সব মেয়েই পরতে ভালোবাসেন। তবে, সোনা পরার কয়েকটি নিয়ম রয়েছে। যেগুলি জানা আবশ্যক।

১. সোনা সাধারণত সবার জন্য। তবে অনেকের ক্ষেত্রেই সোনা শুভ নয়। সেক্ষেত্রে সোনা পরে কেউ আবার দুর্ভাগ্যের শিকারও হন। তবে সঠিক নিয়ম মেনে সোনা পরলে আপনার জীবনে সৌভাগ্য আসতে বাধ্য।

২. সোনায় থাকে উত্তাপ ও বিশেষ শক্তি। আর বিষক্রিয়া থেকেও বাঁচায় সোনা। তবে নিয়ম জানলে আপনি সহজেই সৌভাগ্য পাবেন।

৩. যদি আপনার সর্দি-কাশি বা ঠাণ্ডা লাগার ধাত থাকে তাহলে কনিষ্ঠায় পরুন সোনার আংটি। যদি নাম-যশের আশা করেন তাহলে সোনা পরুন মধ্যমায়।

৪. যদি আপনার মনঃসংযোগের অভাব থাকে, সেক্ষেত্রে সোনার আংটি পরবেন তর্জনীতে। তাতে মন শান্ত হবে।

৫. দাম্পত্য জীবনে যদি সুখ না থাকে, তাহলে গলায় সোনার চেন পরুন কিংবা সোনার লকেট পরুন। ম্যাজিকের মত কাজ করবে।

৬. সন্তান না হওয়ার সমস্যায় ভুগলে সোনা পরুন অনামিকায়।

৭. যাদের কয়লা, লোহার ব্যবসা আছে তারা সোনা পরবেন না। গর্ভবতী ও বয়স্ক মহিলাদের সোনা পরা উচিৎ নয়।

৮. কোমরের নিচে কখনও সোনা পরবেন না। এতে দারিদ্র্য আসতে পারে। কারণ এতে দেবী লক্ষ্মীকে অসম্মান জানানো হয় বলে মনে করা হয়।

সুতরাং সোনার গয়না শুধু পরলেই হয় না, নিয়মগুলি মেনে সোনা পরলে আপনার জীবনে আসবে সুখ-শান্তি।

----
-----