যত দিন যাচ্ছে তত চারিদিকে নানা রকমের অসুস্থতা মানুষকে ঘিরে ধরছে৷ ক্যান্সার থেকে শুরু করে টিউমার, বাদ নেই কোনও রোগের৷ শরীরের সবটা খেয়াল রাখার গেলে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল হৃদয়ের যত্ন৷ বিভিন্ন কারণে আমরা অজান্তেই ক্ষতি ফেলি নিজের হার্টের৷ অসুখ ধরা পড়লে সঙ্গে সঙ্গে ছুটতে হয় ডাক্তারের কাছে৷ ব্যস! এটা বন্ধ ওটা বন্ধ৷ নিজের প্রিয় খাবারে লাল চিহ্ন পড়ে যায় এক আধটা অনিয়মের জন্য৷ এদিন আসার আগেই ফোলো করুণ কিয়েকটি জরুরি টিপস৷ যা আপনার হৃদয়কেও সুস্থ রাখবে, সঙ্গে আপনার ফুড হ্যাবিটও বদলাবার প্রয়োজন পড়বে না৷

এই নিয়মগুলি অতি সাধারণ৷ যা অনুসরণ করতে লাগবে ধৈর্য্য৷

Advertisement

১) সবার আগে বন্ধ করুন ধূমপান৷ কারণ এই একটা কারণের জন্য কেবল হার্ট নয়, ধরা দেয় ক্যান্সারেরও৷ শরীরের জন্য ধূমপান কতটা ক্ষতিকারক তা আলাদা করে কাউকেই বলতে লাহবে না৷ যারা ধূমপান করেন, বা যারা করেন না, প্রত্যেকেই স্মোকিংয়ের ব্যপারের যথেষ্ট সচেতন৷ হার্টের অসুখ বাড়ার কারণই হল ধূমপান৷ নিজেকে সুস্থ রাখতে, নিজের পরিবারকে সুস্থ রাখতে সবার আগে ছাড়তে হবে ধূমপান৷ এই টিপটি অনুসরণ করলেও আপনার হৃদয় অনেকটাই সুস্থ থাকবে৷

২) নিয়মিত যৌন সম্পর্কে আবদ্ধ থাকলে কমতে পারে হার্টের সমস্যা৷ নিজেকে যৌন মিলনে নিযুক্ত রাখলে আপনার মন ভাল থাকবে৷ যার প্রভাব সরাসরি পড়বে আপনার হার্টের উপর৷ এই ধরণের আনন্দদায়ক কার্যকলাপে সক্রিয় থাকলে শরীরের হ্যাপি হরমোনস গুলি আপনার স্ট্রেস দূর করবে৷ কারণ স্ট্রেস বাড়লে, হৃদয়ের বিভিন্ন অসুখের সম্ভাবনাও বাড়বে৷ গবেষণা করে দেখা গিয়েছে, যৌন কার্যকলাপ হার্টের অসুখকে দূরে রাখতে অনেকটাই সাহায্য করে৷

৩) এই নিয়মটি কেউই বোধহয় নিয়ম হিসেবে দেখবেন না৷ সবার বেশ পছন্দের নিয়ম হতে পারে এটি৷ রোজ এক গ্লাস করে রেড ওয়াইন পানব করুন৷ তবে এক গ্লাসের বেশি নয়৷ এখানেই নিজেকে আবদ্ধ করে নিতে হবে৷ এক গ্লাসের বেশি খেলেই সেটা আপনার হৃদয়ের বিভিন্ন সমস্যার কোনও কাজেই আসবে না৷ প্রতিদিন এক গ্লাস করে রেড ওয়াইন পান করলে অতিরিক্ত কোলেস্ট্রোল লেভেল কমিয়ে দেয়৷ হার্টে রক্তের জমাট বাঁধা কমাতে সাহায্য করে৷ তবে নিয়ম করে খেলেই একমাত্র ফল পাওয়া যাবে৷

৪) আমরা অনেকেই পাতে নুন খাই৷ রান্নায় বেশি নুন দিই৷ সেটা খুব তাড়াতাড়ি কমিয়ে ফেলুন৷ দিনে এক চাচামচ নুন আপনার হৃদয়কে সুস্থ রাখার জন্য যথেষ্ট৷ গবেষণায় দেখা গিয়এছে, যারা অতিরিক্ত লবণ খান তাদের হার্ট ডিজিজ বেশি ধরা পড়ে৷

৫) ডার্ক চকোলেট হার্টের জন্য বেশ উপকারী৷ ডার্ক চকোলেটের মধ্যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ফ্ল্যাবোনয়েডস থাকার কারণে হৃদয়কতে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে৷ তবে একটা প্যাকেট গোটা খেয়ে নিলে কিন্তু হীতে বিপরীত হওয়ার সুযোগ থাকতে পারে৷ রাতে খাওয়ার পর এক টুকরো ডার্ক চকোলেট খান৷ তবেই মিলবে ফল৷

৬) লিফ্ট ছেড়ে সিঁড়ি বেশি ব্যবহার করুন৷ অনেকেই হাঁটা এড়িয়ে যাওয়ার জন্য লিফ্ট এবং এসকেটর ব্যবহার করেন৷ কিন্তু এই কাজে সবচেয়ে বেশি আপনি নিজের শরীরের ক্ষতি করছেন৷ সিঁড়ি ব্যবহার করলে আপনার হৃদয় তো সুস্থ থাকবে সঙ্গে ওজনও কমবে৷ যতই জিমে গিয়ে ওয়ার্ক করুন না কেন৷ লিফ্ট ছেড়ে সিঁড়ি দিয়ে হাঁটাচল না করলে কোনও সাহায্যই হবে না৷

৭) রোজ নিয়মিত দাঁত পরিষ্কার করুন৷ গবেষণায় গেখা গিয়েছে, মুখের ভেতর পরিষ্কার না রাখলেই বাড়তে পারে হার্ট ডিজিস৷ রোজ দু’বার ব্রাশ করা শরীর এবং হার্ট সুস্থ রাখার প্রধাণ কারণ৷

----
--