নয়াদিল্লি: বৈঠক হল ভারতের প্রধানমন্ত্রী ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের। মোট ১৪টি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে শনিবার। ভারত-প্রশান্তমহাসাগরীয় অঞ্চলে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা আরও বাড়াতেও সম্মত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও ইমানিয়েল ম্যাকরঁ৷

তবে, কয়েক বিলিয়ন ডলার অর্থমূল্যের রাফালে জেট যুদ্ধ বিমান সরবরাহের ব্যাপারে ফ্রান্সের সঙ্গে স্বাক্ষরিত চুক্তির তথ্য প্রকাশের দাবি মানতে রাজি হচ্ছে না মোদী সরকার। সেই প্রেক্ষাপটেই এই চুক্তি। ২০১৬ সালে প্রায় ৫৮ হাজার কোটি টাকার চুক্তিতে সই করে ভারত, ফ্রান্স। চুক্তি অনুসারে ৩৬টি রাফায়েল যুদ্ধবিমান ভারতকে দেবে ফ্রান্স। কংগ্রেসের দাবি, তাদের আমলে এ ব্যাপারে স্বাক্ষরিত চুক্তিতে যে দাম ঠিক হয়েছিল, তার চেয়ে অনেক বেশি দাম ধরা হয়েছে মোদীর সই করা চুক্তিতে। চুক্তির সব তথ্য প্রকাশ করুক সরকার। অন্যদিকে, ভারতকে আরও ৩৬টি রাফায়েল দিতে দরাদরি শুরু করেছে ফ্রান্স।

Advertisement

পরে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে মোদী বলেন, ‘আমাদের প্রতিরক্ষা সহযোগিতা এমনিতেই দৃঢ়। ফ্রান্সকে সবচেয়ে বিশ্বস্ত প্রতিরক্ষা শরিকদের মধ্যে ফেলছি আমরা। দু’দেশের সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যে সরঞ্জাম দেওয়া নেওয়ার বোঝাপড়াকে তিনি প্রতিরক্ষা সম্পর্কে সোনালী সময় বলেও মন্তব্য করেন।

পাল্টা ফরাসি প্রেসিডেন্ট দুদেশের প্রতিরক্ষা সহযোগিতার নতুন গুরুত্ব রয়েছে বলে অভিমত জানিয়ে বলেন, ভারত এ ব্যাপারে রাফালে যুদ্ধবিমান কেনার এক সার্বভৌম সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আমরা এক্ষেত্রে অগ্রগতির দিকে নজর রাখছি। আমরা এই চুক্তি এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। এটা এক দীর্ঘমেয়াদি চুক্তি যাতে উপকৃত হবে দুপক্ষই। আমি ব্যক্তিগত ভাবে মনে করি, আমাদের কৌশলগত বোঝাপড়ার মূলে রয়েছে এটি।

----
--