মুম্বই: ভগবত গীতা কোনও ধর্মীয় গ্রন্থ নয়, তাই স্কুলে এই বই পড়ানোর সঙ্গে কোনও সাম্প্রদায়িক সম্পর্ক নেই। এমনটাই দাবি করলেন, মহারাষ্ট্রের শিক্ষামন্ত্রী বিনোদ তাওড়ে। শনিবার তিনি দাবি করেন, যে কোনও ধর্মীন গ্রন্থ কলেজে বিনামূল্যে বিতরণও করা যায়।

শিক্ষামন্ত্রী অভিযোগ করে বলেন, আজ যদি কেউ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গীতা পড়াতে চায় তাহলে সেই ঘটনাকে বিজেপির গেরুয়াকরণ বলে চিহ্নিত করা হয়। এর জন্য সবাদমাধ্যমকেও দায়ি করেন তিনি। মুম্বইয়ের ভক্তিবেদান্ত বিদ্যাপীঠ রিসার্চ সেন্টারে বক্তব্য রাখছিলেন তিনি। সেখানেই বলেন, ”আজকের দিনে কেউ ভগবতগীতা বিতরণ করলে সে সাম্প্রদায়িক হয়ে যায়। কবে এই মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসা সম্ভব হবে? এক ক্লাস ওয়ানের শিশুও গীতা থেকে জীবনের পাঠ নিতে পারে।”

Advertisement

তাঁর মতে, গীত, বেদ, উপনিষদ কোনোটাই ধর্মীয় গ্রন্থ নয়। এগুলি বৈজ্ঞানিক ও দার্শনিক বই। এগুলি শুধুই মন্দিরে সীমাবদ্ধ রাখা উচিৎ নয় বলে মনে করেন তিনি। মন্ত্রী বলেন, কোরান বা বাইবেলও যদি বিনামূল্যে দেওয়া হয়, তাহলে সেটাও কলেজে কলেজে বিতরণ করা হবে।

চলতি বছরের জুলাই মাসে মহারাষ্ট্রের শিক্ষা দফতরের জয়েন্ট ডিরেক্টর একটি চিঠি দিয়ে A ও A+ ক্যাটাগরির কলেজগুলিকে নির্দেশ দেয়, যাতে তারা শিক্ষা দফতর থেকে গীতার কপি সংগ্রহ করে নিয়ে যায়। সেই নির্দেশেই শুরু হয় বিতর্ক। শিক্ষা ব্যবস্থায় গেরিয়াকরণ করার অভিযোগ ওঠে।

----
--