জয়ললিতাকে ‘ভারতরত্ন’ দেওয়ার দাবি তুলল এআইএডিএমকে

চেন্নাই: প্রয়াত জননেত্রী জয়ললিতাকে দেশের সর্বোচ্চ সম্মান ‘ভারত রত্ন’ দেওয়ার দাবী তুলল অল ইন্ডিয়া অন্য দ্রাভিড় মুনেত্রা কাজাগাম। পাশাপাশি রাজ্যের প্রথম মুখ্যমন্ত্রী সিএন আন্নাদুরাই ও রাজ্যের সর্বকালের নেতা পেরিয়ার রামস্বামীকে ‘ভারত রত্ন’ সম্মানে ভূষিত করার দাবী তুলেছে তারা। দলের প্রধান সদস্যদের একটি আলোচনার পর কেন্দ্রীয় সরকারকে এবিষয়ে আবেদন জানানো হবে বলে স্থির হয়। তামিলনাডুর এই তিন স্তম্ভের যে লড়াই ও জনমানসে তাঁদের যে প্রভাব এই জন্যই তাঁদের এই সম্মানে ভূষিত করা উচিত এমনটাই জানিয়েছেন তারা।

২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাসে প্রয়াত হন জয়ললিতা, এর পর থেকেই তাঁকে ‘ভারত রত্ন’ দেওয়ার দাবী তোলে এআইএডিএমকে। তবে রাজ্যের অন্য দুই মুখ্যমন্ত্রী পেরিয়ার ও আন্নাদুরাইের জন্য তাঁদের মৃত্যুর কয়েক যুগ পর ‘ভারতরত্ন’এর দাবি তুললেন তারা।

অতি সম্প্রতি ডিমকে’র রাজ্যসভার সাংসদ তিরুচি সিভা সদ্য প্রয়াত পার্টি প্রধান করুণানিধিকে তাঁর অসামান্য অবদানের জন্য কেন্দ্রের কাছে ‘ভারত রত্ন’এর দাবি জানান।

- Advertisement -

রাজ্যসভার জিরো আওয়ারে সিভা জানান, করুণানিধি একজন দ্রাবিড় যোদ্ধা। এবং দেশের সবচেয়ে দীর্ঘ সময়ের নেতা। বৃহস্পতিবার এআইএডিএমকের চেয়ারম্যান ই মধুসুধন ভারতরত্নের দাবী জানান সমাজ সংস্কারক রামস্বামী যিনি ‘পেরিয়ার’ হিসেবে পরিচিত, এছাড়া অন্নাদুরাই ও জয়ললিতার। দলের আহ্বায়ক পান্নেরসেল্ভাম ও পালানিস্বামী আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন। তারা বলেন, ‘জয়ললিতা ভারতমাতার গর্বিত সন্তান’ যিনি মানুষকে ভালোবাসতেন। তিনি মানুষের জন্য বহু কঠিন পথ পার করেছেন। মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে বহু জনকল্যাণমূলক কাজ করেছেন। নারী ও শিশুকল্যাণেও তাঁর অবদান ভোলার মতো নয়। তিনি রাজ্যে ন্যায়বিচারের ধারা এনেছিলেন।

পেরিয়ার বিশ্বের অন্যতম বড় সমাজ সংস্কারক। কিভাবে লেখা ও কাব্যের মধ্য দিয়ে দেশে বিপ্লবের বীজ পুঁততে হয় তিনি দেখিয়েছিলেন। তিনি নারীদের জন্যও লড়াই করেছেন।

অন্যদিকে অন্নাদুরাই ডিএমকে’র প্রতিষ্ঠাতা ও স্বাধীনতার পর তামিলনাডুর প্রথম অ-কংগ্রেসি মুখ্যমন্ত্রী যিনি দেখিয়ে ছিলেন একটি আঞ্চলিক দলও সরকার গড়তে পারে। রাজ্যের নাম মাদ্রাস থেকে তামিলনাডু, অনাহার, খাদ্য সুরক্ষার মতো কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের দিকে তিনি আলোকপাত করেছিলেন। এই কারনের জন্যই এই তিন স্তম্বের জন্য ‘ভারত রত্ন’এর দাবী জানায় তারা। পাশাপাশি এদিন তারা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর প্রয়ানে শোক প্রকাশ করে। এছাড়া কেরল ও কর্ণাটকের বন্যার্ত মানুষদের প্রতিও তারা সমবেদনা জানান।

Advertisement ---
---
-----