শিমুল গাছেই মিলল এবার ঈশ্বরের ছায়ামূর্তি!

ইংরেজবাজার: ডিজিটাল ইন্ডিয়ার যুগেও মালদহের মানিকচক এখনও কুসংস্কারাচ্ছন্ন। স্থানীয় বাসিন্দাদের কুসংস্কারের জন্যই এবার সংবাদ শিরোনামে উঠে এল মানিকচকের অখ্যাত নাজিরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের আটগামা বলরামপুর গ্রাম৷ এই গ্রামেই এক শিমুল গাছকে কেন্দ্র করে দিন-রাত এক করে পুজো অর্চনায় মেতে উঠলেন এলাকাবাসী৷ ফুল-মালা-ধূপ-ধুনো জ্বালিয়ে, কাঁসর বাজিয়ে চলছে আজব পুজো৷

God1স্থানীয় সূত্রে খবর, বেশ কয়েকদিন আগে গ্রামের একটি শিমুল গাছে মূর্তির মতো কিছু দেখতে পান স্থানীয়রা৷ গাছটির কাণ্ডে দেখা মিলেছে দুটি চোখ, মুখ ও একটি গোঁফের মতো আবছা কিছু রেখা৷ তা দেখে গ্রামবাসীদের ধারণা, গাছটিতে ভগবানের আবির্ভাব ঘটেছে৷ মুহূর্তেই গোটা ঘটনাটি চাউর হতে শুরু করে গোটা গ্রামে৷ শুরু হয় স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যের কৌতুহল৷ গাছটিকে কেন্দ্র করে শুরু হয় পুজো-অর্চনা৷ সকাল বিকেল ও সন্ধ্যায় নিয়ম মেনে এখনও চলছে গাছ পুজো। এলাকার বাসিন্দা অমিত মিশ্র বলেন, ‘‘আজ থেকে প্রায় ২০ দিন আগে এক শিশু সকালে শৌচকর্ম করতে যায় ওই শিমুল গেছের নীচে৷ হঠাতই সে দেখে গাছে বসে আছে এক দৈত্য৷ ভয় পয়ে ওই শিশুটি স্থানীয়দের ডেকে আনার পর, দেখা যায় গাছে কেউ নেই৷ এর পর ওই গাছেই মহামানবের মানব-ছায়া দেখা যায়। তারপর থেকে চলছে পুজো।’’ সেই ছবিকে অনেকে শিবের আখ্যা দিতে শুরু করেছেন৷ চলছে পুজো৷ কিন্তু, সব দেখেও এখনও নিরুত্তর প্রশাসন৷ গ্রামে কুসংস্কার ঠেকাতে  এখনও পর্যন্ত প্রশাসনিক কোনও উদ্যোগ না নেওয়ায় বিরক্ত মালদহের বিশিষ্টজনেরা৷