বেঙ্গালুরু: শিশু চোর সন্দেহে এক গুগল ইঞ্জিনিয়ারকে পিটিয়ে খুন করল উত্তেজিত জনতা৷ এছাড়া আরও তিন জনকে পিটিয়ে আধমরা করা হয়েছে৷ মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে কর্ণাটকের বিদর জেলায়৷ পুলিশ জানিয়েছে, মৃত গুগল ইঞ্জিনিয়ারের নাম মহম্মদ আজাম আহমেদ৷ সে হায়দরাবাদের মলকপেটের বাসিন্দা৷ অপরদিকে আহতরা সবাই কাতারের বাসিন্দা৷

Advertisement

এই ঘটনায় আরও একবার সোশ্যাল মিডিয়ার অপব্যবহার করে ভুয়ো খবর ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে৷ অউরদ পুলিশ থানার এক আধিকারিক জানিয়েছেন, হোয়াটস অ্যাপের মাধ্যমে তিন জন গ্রুপ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর ওই চারজনের ছবি ও নাম দিয়ে শিশু চোর বলে গুজব ছড়ায়৷ তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ এছাড়া গণপিটুনির ঘটনার জড়িত থাকার অভিযোগে আরও ৩০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷

ওদিকে জনতার বেদম প্রহারের পর হায়দরাবাদের হাসপাতালে আধমরা হয়ে ভরতি আছেন সালেম ইডাল কুবাইসি, নুর মহম্মদ ও মহম্মদ সলমন৷ এর সকলেই কাতারের নাগরিক৷ কুবাইসির স্ত্রী জাইবুন্নিসা জানান, শুক্রবার সকালে তাঁর স্বামী বন্ধুদের নিয়ে বিদরে যান এক আত্মীয়ের সঙ্গে দেখা করতে৷

সেখানে একটি অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পথে জমি দেখতে যান৷ ওই জমিটি কিনতে আগ্রহী ছিলেন তাঁর স্বামী৷ মুরকি গ্রামের কাছে তারা চায়ের দোকানে একটু জিরিয়ে নেন৷ সেই সময় কিছু স্কুল পড়ুয়াকে তারা বাড়ি ফিরতে দেখেন৷ ওদের দেখে সলমন চকোলেট দেয়৷ তখনই কেউ কেউ গুজব ছড়ায় চকোলেটের লোভ দেখিয়ে শিশুদের চুরি করতে এসেছে চরজন৷

এরপরই সেখানে ভিড় জমে যায়৷ এত লোক দেখে ঘাবড়ে তারা গাড়ি করে পালিয়ে যায়৷ কিন্তু ততক্ষণে কেউ ওদের চারজনের ছবি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেয়৷ মুহূর্তের মধ্যে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়৷ এরপর একটি গ্রামের বাসিন্দারা গাছ দিয়ে রাস্তা আটকে দেন৷ অপরদিক থেকে দ্রুত গতিতে আসা গাড়িটি গাছে ধাক্কা মেরে উলটে যায়৷ তখন ওদের গাড়ি থেকে বার করে পিটিয়ে মারে উত্তেজিত জনতা৷

----
--