প্রকাশ্যেই প্রেম করছেন দুই টলিব্রাদার্স, কাদের সঙ্গে বলুন তো!

কলকাতা: চুপিসারে নয়, বেশ খোলামেলাই প্রেমে দুই টলি ব্রাদার্স৷ একজন হলেন গৌরব চট্টোপাধ্যায় এবং অন্যজন হলেন সৌরভ বন্দোপাধ্যায়৷ দুজনের কিন্তু মনের মানুষ ইন্ডাস্ট্রিরই পরিচিত মুখ৷ একজন হলেন দেবলীনা কুমার এবং অপরজন হলেন তন্বী লাহা রায়৷

সম্প্রতি এই চার তারকা কিন্তু কলকাতার এক নামী রেস্তোরায় লাঞ্চ করতে গিয়েছিলেন৷ সেখানেই চারজন একসঙ্গে পোজ দিয়ে তুললেন বেশ কয়েকটি ছবি৷ যা ইনস্টাগ্রামে আপলোড করার মুহুর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে পড়ে৷ অভিনেতা গৌরব পড়েছিলেন সাদা রঙের ফুলশ্লিভ টি-শার্ট এবং ব্লু ডেনিম জিন্স এবং দেবলীনা পড়েছিলেন লাল রঙের কুর্তী৷ অপরদিকে সৌরভ পড়েছিলেন ডার্ক ডেনিম রঙের হাফ স্লিভ টি-শার্ট এবং হোয়াইট ট্রাউজার৷ অন্যদিকে তন্বী পড়েছিলেন হলুদ রঙের স্লিভলেস টপ৷ দুই কাপলকেই যে অনবদ্য লাগছিল তা কিন্তু এককথায় বলাই চলে৷

আপাতত অভিনেতা একটা লম্বা ছুটিতে রয়েছেন৷ সম্প্রতি শেষ হয়েছে স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘আদরিনী’৷ সেখানে মুখ্যচরিত্রে দেখা গিয়েছিল এই অভিনেতাকে৷ অন্যদিকে সৌরভকে এখন দেখা যাচ্ছে ‘ভজগোবিন্দ’ সিরিয়ালের এক গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে৷ অন্যদিকে তন্বী বাংলা ধারাবাহিকের অন্যতম মুখ৷ একাধিক সিরিয়ালে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন সে৷ তবে দেবলীনা কিন্তু বড়পর্দাতেই দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন৷ সম্প্রতি মুক্তি পেল তাঁর আপকামিং ছবি ‘আবার বসন্ত বিলাপ’৷ ছবিতে রয়েছেন পরান বন্দোপাধ্যায়, মীর, খরাজ মুখোপাধ্যায়, মৌসুমী সাহা, দেবলীনা কুমার, অনুভব কাঞ্জিলালের মতো অবিনেতারা৷
৩ মিনিট ২৬ সেকেন্ডের এই ট্রেলারে প্রত্যেকটা চরিত্র সম্পর্কেই সংক্ষেপেই বিশ্লেষন করেছেন পরিচালক রাজেশ দত্ত এবং ইপ্সিতা রায় সরকার৷

আরও পড়ুন:  দিদিকে জড়িয়ে খুশির কান্না!

ছবি প্রসঙ্গে অভিনেতা পরান বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, “আগেই বলে রাখি এই ছবিটির সঙ্গে পুরোনো বসন্ত বিলাপের কোন মিল নেই৷ এটা পুরোপুরি আলাদা বিলাপ তবে বসন্তেরই৷ আমি এখানে একজন প্রেসের ম্যানেজারের চরিত্রে অভিনয় করছি৷ অবিবাহিত, ফলে জীবনে একটু সুড়সুড়ি আছেই৷ যৌবনে যা হয়নি, সেই অপ্রাপ্তি থেকেই প্রেসের একজন সুন্দরী মহিলার প্রেমে পড়া, প্রথমে তাঁর সঙ্গে আলাপ ঘটে, তারপর সংলাপ অবশেষে বিলাপ৷”

আরও পড়ুন:  OMG! কমেডি ক্যুইন ভারতীর স্বপ্ন ছিল অন্যকিছু হওয়ার!

অন্যদিকে বিচিত্র রকমের মানুষ হলেন ডিম্পিদা অর্থাৎ মীর, এই চরিত্র সম্পর্কে অভিনেতা জানিয়েছিলেন, “ডিম্পিদা হলেন একজন শৌখিন মানুষ৷ তাঁর ক্লাসে ছেলেদের কোন জায়গা নেই, শুধু মেয়েরাই এখানে পড়তে আসে৷ তাই বলে যে সে মেয়েদের প্রতি দুর্বল তা কিন্তু নয়৷ আসলে সে একটু মেয়েলী৷ তবে সে একটি বিশেষ মানুষের প্রেমে পড়ে৷সে হলেন ঘন্টা৷আমি আগেও কোচিংয়ের স্যার হয়েছিলাম৷ কিন্তু সেখানে আমার চরিত্রটা পুরো ভিন্ন রকমের ছিল৷ উনি কড়া ছিলেন, কিন্তু ডিম্পিদা একদমই কড়া নয়৷”

----
-----