সুখবর! এবার সস্তার স্ন্যাকস বিমানবন্দরে

নয়াদিল্লি: এক কাপ চায়ের দাম ১০০ টাকা৷ কফির দাম চায়েরও দ্বিগুণ৷ দেশের সব বিমানবন্দরে বাইরের দোকান থেকে অত্যাধিক বেশি দামে বিক্রি হয় চা, কফি৷ এমনকী জলের বোতলের দামও এমআরপির থেকে বেশি নেওয়া হয়৷ বাধ্য হয়েও চড়া দামে যাত্রীদের কিনতে হয় চা বা জল৷ এ নিয়ে তাদের বিস্তর অভিযোগ৷ সুরাহায় যাত্রীদের জন্য সুখবর ঘোষণা এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষের৷

এয়ার ইন্ডিয়ার ঘোষণা, দেশের সব বিমানবন্দরে কিছু কাউন্টার খোলা হবে যেখানে বাইরের দামের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে মিলবে চা,কফি, জল ও স্ন্যাকস৷ বিমানবন্দরের ভেতরে যে অত্যাধিক দামে খাবার ও জল বিক্রি নয় তা নিয়ে যাত্রীদের ক্ষোভ দীর্ঘদিনের৷

এমনকী সংসদের ভিতর বেশ কয়েকজন সাংসদও বিষয়টি নিয়ে সোচ্চার হন৷ চলতি বছর মার্চ মাসে প্রবীণ কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরম ট্যুইট করে খাবারের অত্যাধিক দাম নিয়ে সরব হন৷ নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করে তিনি লেখেন, চেন্নাই এয়ারপোর্টে এক কাপ চায়ের দাম দেখে চক্ষু চড়কগাছ৷ শেষ পর্যন্ত চা পান না করার সিদ্ধান্ত নেন৷

- Advertisement -

এদিকে খাবারের চড়া দাম নিয়ে অভিযোগের পাহাড় দেখে অবশেষে নড়েচড়ে বসতে বাধ্য হয় এয়ার ইন্ডিয়া৷ এক আধিকারিক জানিয়েছেন, দিল্লি, মুম্বই ও বেঙ্গালুরু সহ দেশের ৯০টি বিমানবন্দরে সুলভ মূল্যের এই কাউন্টার খোলা হয়েছে৷ এখন বিমানে শুধুমাত্র উচ্চবিত্তরা চড়েন না৷ উড়ান স্কিম চালু হওয়ার পর থেকে অনেক উচ্চমধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত বিমানে যাতায়াত করেন৷ তাই সব ধরনের যাত্রীদের সুবিধার জন্য এই ব্যবস্থা৷ গত তিন চার বছর ধরে বিমানযাত্রীর সংখ্যা ২০-২৫ শতাংশ হারে বেড়েছে৷ তাই এয়ার ইন্ডিয়ার নয়া ঘোষণায় কিছুটা হলেও স্বস্তি পাবেন তারা৷

Advertisement ---
---
-----