গান্ধীনগর: কোনওরকম খবর না দিয়ে একেবারে অপ্রত্যাশিতভাবেই গান্ধীনগরে মায়ের কাছে গিয়ে হাজির হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ বৃহস্পতিবার গান্ধীনগরের রাজভবনে শ্রী সোমনাথ ট্রাস্টের একটি বৈঠকে অংশগ্রহণ করতে হাজির হয়েছিলেন তিনি৷ এই বৈঠকের পরে সোজা নিজের মা-এর কাছে চলে যান তিনি৷

তবে এই বিষয়টি যতটা না অপ্রত্যাশিত তার থেকেও বেসি অবাক করা হল, নিরাপত্তা বাহিনী ছাড়াই তিনি একা সেখানে চলে যান৷ এবং সময় কাটান মা হীরাবেন মোদী৷ মোদীর ছোট ভাই পঙ্কজ মোদীর সঙ্গেই থাকেন তাঁর মা৷ প্রায় ১৫ মিনিট সেখানে থাকেন তিনি৷

প্রসঙ্গত, গুজরাতের ভালসাদের জুজওয়া গ্রামে এক জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নিজের স্বপ্নের কথা তুলে ধরেন৷ তিনি বলেন কেন্দ্রীয় সরকারের আবাস যোজনাকে কাজে লাগিয়ে এই দেশের প্রতিটি নাগরিক নিজের বাড়ি পাবে, তাও ২০২২ সালের মধ্যে৷ তিনি আরও বলেন ভারত সেই বছরই স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্ণ করবে, আর সেই বছরই দেশের প্রতিটি নাগরিক মাথার ওপরে ছাদ পাবে, নিজের বাড়ি পাবে৷ এমনই আশা করেন তিনি৷

পড়ুন: ২০২২ সালের মধ্যে সবার নিজের বাড়ি হবে : প্রধানমন্ত্রী

তিনি আরও বলেন প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার মাধ্যমে এই বাড়িগুলি তৈরি হবে৷ প্রতিটি বাড়ি উন্নত মানের উপকরণ দিয়ে তৈরি হবে৷ এজন্য কোনও নাগরিককে এক টাকাও ঘুষ দিতে হবে না৷ মায়েরা এবং বোনেরা যাতে স্বস্তির সঙ্গে বলতে পারবেন এই বাড়ি তাঁরা পেয়েছেন সরকারি নিয়ম অনুযায়ী। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার সুফল সম্পর্কে বলতে গিয়ে এই কথাগুলি বলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী৷

তিনি নিজের জীবনে গুজরাটের অবদানের কথাও তুলে ধরেন৷ বলেন, গুজরাট তাঁকে অনেক কিছু শিখিয়েছে৷ কী করে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নিজের স্বপ্ন পূর্ণ করতে হয় তা তাঁকে শিখিয়েছে নিজের রাজ্য৷ সেই পথেই হাঁটেন তিনি৷ আর সেই পথেই প্রত্যেক পরিবারকে নিজের বাড়ি তৈরি করে দেওয়ার স্বপ্ন দেখেন তিনি৷

--
----
--