মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন ধ্যানচাঁদ পুরস্কার বিজয়ী

বরনালা: এশিয়ান গেমসে দেশের হয়ে সোনার পদক জিতেছিলেন৷ ধ্যানচাঁদ পুরস্কারও রয়েছে তাঁর ঝুলিতে৷ একসময়কার তুখোড় অ্যাথলিট আজ বিছানা ছেড়ে উঠতে পারেন না৷ লিভার এবং কিডনির একাধিক সমস্যায় ভুগছেন সোনা জয়ী হাকাম সিং ভট্টল৷ হাকামের চিকিৎসার জন্য পরিবার সবরকম চেষ্টা করলেও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়নি পঞ্জাব সরকার৷

আরও পড়ুন:‘ধোনি আমাকে পেপার পড়তে বারণ করেছিল’

১৯৭২ সালে ৬শিখ রেজিমেন্টেরে হয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যোগ দেন হাকাম৷ ১৯৭৮ সালে এশিয়ান গেমসে ২০ কিলোমিটার রেস ওয়াকে সোনা জিতেছিলেন পঞ্জাবের এই অ্যাথলিট৷ এর এক বছর পর টোকিও-তে এশিয়ান ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ড মিটিংয়ে সোনা জেতেন৷ পঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী রাজেন্দ্র কৌর ভট্টলের পাশের গ্রামের ছেলে হাকামের অ্যাথলিট হয়ে ওঠার গল্পটা অনেকেরই অনুপ্রেরণার কারণ হতে পারে৷ ১৯৮১ সালের একটি দূর্ঘটনার ফলে ট্র্যাক থেকে সরে আসতে বাধ্য হন হাকাম ভট্টল৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন:হরিতা-হরম চ্যালেঞ্জ নিলেন সচিন-ভিভিএস

১৯৮৭ সালে ভারতীয় সেনাবাহিনী থেকে অবসর নেওয়ার পর মাঝের ১৬ বছর খুবই কষ্টে কাটান দেশের হয়ে সোনা জয়ী এই অ্যাথলিট৷ ২০০৩ সালে তাঁকে পঞ্জাব পুলিশে বহাল করে তৎকালীন পঞ্জাব সরকার৷ ২০১৪ পর্যন্ত পঞ্জাব সরকারের হয়ে পুলিশের চাকরী করেন৷ মাঝের সময়ে পঞ্জাবের অ্যাথলেটিক্স কোচের দায়িত্বও সামলেছেন৷ ২০০৮ , ২৯ আগস্ট ভারতের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি প্রতিভা দেবী সিং পাটিলের কাছ থেকে ধ্যানচাঁদ পুরস্কার নেন৷সারাজীবন লড়াকু মনো ভাবের ৬৪ বছররে এই অ্যাথলিট এখন হাসপাতালের বেডে শরীরে আশ্রয় নেওয়া একাধাক রোগের সঙ্গে লড়ে যাচ্ছেন৷

আরও পড়ুন:হিমা দাসের কোচের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ

Advertisement
-----