কলকাতার মৎস্য মেলায় স্টল পেলেন হলদিয়ার চাষি

স্টাফ রিপোর্টার, হলদিয়া: রাজ্য মৎস্য উন্নয়ন নিগমের কলকাতার “ইলিশ ও চিংড়ির মেলা” শুরু হয়েছে৷ সেই মেলাতে স্টলে পেল পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হলদিয়া ব্লকের মাছ চাষি সফি আহমেদের ফিশারির দেশীয় চিংড়ি মাছ। রাজ্যের মানুষদের বিভিন্ন ধরণের চিংড়ি মাছ ও ইলিশ চেনানোর এই অভিনব উদ্যোগে সামিল হয়েছে হলদিয়ার মাছ চাষি।

হলদিয়া থেকে নিয়ে যাওয়া চিংড়ি মাছগুলির স্থানীয় নাম চেমলা চিংড়ি, থোরা চিংড়ি ও মিঠা চিংড়ি। রাজ্য মৎস্য উন্নয়ন নিগম কলকাতার সল্টলেকের নলবন ফুড পার্কে একটি “ইলিশ ও চিংড়ির মেলা” অনুষ্টিত হচ্ছে।

আরও পড়ুন: দাদুর শেষকৃত্যে কান্নায় ভেঙে পড়লেন নেহা

- Advertisement -

১৯ শে আগষ্ট রবিবার পর্যন্ত চলবে এই মেলা। এই মেলায় পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তের উপলব্ধ ইলিশ ও চিংড়ি মাছের প্রদর্শনী ও বিক্রয় হবে। এছাড়া থাকছে ইলিশ ও চিংড়ি মাছের “খাদ্য মেলা”।

স্থানীয় নামে পরিচিত এই চিংড়ি মাছগুলি প্রদর্শন করা হবে রাজ্যের মানুষের কাছে। সফি আহমেদ কিছুদিন আগে হলদিয়ার মৎস্যচাষি দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে ব্লকের শ্রেষ্ঠ মৎস্য চাষী হিসেবে সম্মান শুভেচ্ছা স্মারক পেয়েছেন।

আরও পড়ুন: বড়জোড়ায় ‘অবাক যান’, রাস্তার দু’ধারে মানুষের ভিড়

মিষ্টি জলের মাছ চাষে মাছ ও চিংড়ির অধিক উৎপাদন এবং বায়ুসঞ্চালন হিসেবে অভিনব “জল-ঝরনা” পদ্ধতি উদ্ভাবনের জন্য এই পুরস্কার পেয়েছেন বাড়বাসুদেবপুর গ্রামের সফি আহমেদ। এবার রাজ্যের মানুষের কাছে দেশীয় চিংড়ি মাছ চেনাতে কলকাতায় হাজির হয়েছেন তিনি।

হলদিয়ার মৎস্যচাষ সম্প্রসারন আধিকারিক সুমন কুমার সাহু মাছ চাষি সফি আহমেদকে শুভেচ্ছা জানান৷ তিনি জানান, হলদিয়ার মাছ চাষি দেশীয় চিংড়ি মাছের সাফল্যের সঙ্গে চাষ করছেন৷ সেই চিংড়িগুলি রাজ্যের মানুষের কাছে পরিচিত করাছে এটি গর্বের বিষয়৷ এতে অন্যন্য মাছ চাষিরাও উদ্বুদ্ধ হবে।

আরও পড়ুন: সড়ক নির্মাণে বৈপ্লবিক পদক্ষেপ বাজপেয়ীর হাত ধরেই

বানিজ্যিক ভাবে ভেনামী, বাগদা, গলদা ছাড়াও এই সব দেশীয় চিংড়ি চাষ করা যায়৷ তা রাজ্যের মানুষের কাছে চেনাচ্ছে হলদিয়ার মাছ চাষি এটা একটি দৃষ্টান্ত।

চিংড়ি মাছ গুলির স্থানীয় নাম চেমলা চিংড়ি, থোরা চিংড়ি ও মিঠা চিংড়ি। তবে চিংড়ি মাছগুলোর এলাকা বিশেষে অনেক নামেই পরিচিত যেমন কোলা চিংড়ি (Penaeus merguiensis), চাপড়া চিংড়ি (P. indicus), বাঘাতারা চিংড়ি (P. semisulcatus), হরিনা চিংড়ি (Metapenaeus monoceros) এবং কুচো চিংড়ি (M. brevicornis) ইত্যাদি ।

আরও পড়ুন: কীসের খোঁজে আসছেন ‘ক্যাপ্টেন খান’?

Advertisement
---