শিক্ষকের হেনস্থায় আত্মঘাতী ছাত্র

কোয়াম্বাটুর: স্কুল শিক্ষকদের কাছে হেনস্থার জেরে আত্মহত্যা করল নবম শ্রেণির এক ছাত্র৷ সার খেয়ে আত্মহত্যা করে বছর ১৪-র এন বাবু৷ ভেঙ্কাট্টিপুরমে কর্পোরেশন পরিচালিত পি কমল নাথন মেমোরিয়াল হাই স্কুলের ছাত্র ছিল বড়াভাল্লির বাসিন্দা এন বাবু৷

এন বাবুর লেখা সুইসাইড নোটের ফরেন্সিক পরীক্ষার পর স্কুলের তিন শিক্ষককে জেরা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুলিশ৷ জানা গিয়েছে, ১৫ অগাস্ট স্কুলে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিল বাবু৷ কিন্তু স্কুল থেকে ফেরার পর মনমরা হয়ে পড়েছিল সে৷ মঙ্গলবার দুপুর ২টো নাগাদ সার খেয়ে আত্মহত্যা করে বাবু৷ কয়েক ঘণ্টা পর বাবু তার বাবা নাগরাজনকে সার খাওয়ার কথা জানায়৷ নাগরাজন পেশায় নির্মাণ কর্মী৷ সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ প্রাথমিক চিকিৎসার পর চিকিৎসকরা এন বাবুকে কোয়াম্বাটুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন৷ সেখানে পৌঁছনোর পর বাবুকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা৷ বাবুর দেহ নিতে অস্বীকার করে তার পরিবার৷ তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানান তারা৷ অভিযোগ, গত এক মাস ধরে স্কুলে বাবুকে হেনস্থা করেছে ওই তিন শিক্ষক৷

Advertisement ---
---
-----