কীভাবে ভারতীয়দের মারে আইএস জঙ্গিরা? ফাঁস করলেন একমাত্র জীবিত এই ব্যক্তি

নয়াদিল্লি: ২০১৪ সালে ৪০ জন ভারতীয় নিখোঁজ হয়েছিল ৪০ জন ভারতীয়৷ ইরাকের মোসৌল শহর থেকে নিখোঁজ হয় তারা৷ আত্মীয়দের কাছে তখন থেকেই আসত হুমকি ফোন৷ এনিয়ে একাধিকবার ভারত সরকারকে তারা জানিয়েছে৷ কিন্তু তাদের ক্রমাগত আশ্বাস দিয়ে আসছিল প্রশাসন৷ সম্প্রতি ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক জানিয়েছে, সুদূর ইরাকে জঙ্গিগোষ্ঠী খুন করেছে ওই ভারতীয়দের৷ তবে ৪০ জন নয়৷ ৩৯ জন৷ ১ জন সেই জঙ্গি ডেরা থেকে বেঁচে ফিরেছে৷ তাঁর নাম হরজিৎ মাসিহ৷

মোসৌলের কাছে ওই ৩৯ জনের কবর পাওয়া গিয়েছে৷ তার মধ্যে ৩৮ জনকে ইতিমধ্যেই ডিএনএ টেস্টের সাহায্যে শনাক্ত করা হয়েছে৷ একজন শিখ ব্যক্তির আইকার্ড পাওয়া গিয়েছে কাছেই৷ তবে তার দেহ নিয়ে এখনও বিশ্লেষণ চলছে৷ সুষমা স্বরাজ বলেছেন, সমস্ত প্রমাণ সহ তিনি জানাচ্ছেন ওই ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে৷

অনেকদিন ধরে ভারত সরকার আশা রেখেছিল ৪০ জনের মধ্যে অন্তত কয়েকজন তো বেঁচে ফিরবে৷ কিন্তু জঙ্গিদের হাত থেকে মুক্তি পেয়ে দেশে ফেরার পর থেকে সরকারের সেই আশায় ক্রমাগত জল ঢেলে যাচ্ছিলেন হরজিৎ মাসিহ৷ বারবার তিনি সাংবাদিকদের জানিয়ে যাচ্ছিলেন গ্রপের সবাইকে মেরে ফেলা হয়েছে৷ তিনিই জানিয়েছিলেন, আই এস জঙ্গিরা তাদের পাকড়াও করেছিল৷ অনেকদিন আটকে রেখেছিল৷ একদিন সবাইকে বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়৷ হাঁটু গেড়ে বসতে বলা হয়৷ শুরু হয় গুলি চালানো৷

- Advertisement -

“আমার মাসনে ওদের মেরে ফেলা হয়৷” মঙ্গলবার থেকে এই কথাই বারবার আওড়াচ্ছেন হরজিৎ মাসিহ৷ তিনি এও বলেন, ভাগ্যিস তাঁর গুলি উরুতে লেগেছিল৷ তাই তিনি পালাতে সক্ষম হন৷ কুদ্রিশ নিয়ন্ত্রিত ইরবুল দিয়ে পালিয়ে আসেন তিনি৷

একটি বিবৃতিতে ইরাকের সরকার জানিয়েছে ভারতীয় দূতাবাসের সঙ্গে মিলে তারা ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করবে৷ ভারতে দেহগুলি পাঠাতেও সাহায্য করবে তারা৷

যে কবর থেকে ওই ৩৯ জনের দেহ উদ্ধার হয়েছে, সেখানে আরও মৃত শরীর থাকতে পারে বলে জানা গিয়েছে৷ কারণ ২০১৪ সালে কাছের একটি জেল থেকে ৫০০ জনকে নিয়ে এসেছিল আইএস৷ ইরাকের বিভিন্ন স্থানে একাধিক এমন কবর আবিষ্কৃত হয়েছে৷

ডিসম্বরে ইরাক সরকারের তরফ থেকে জানানো হয় আইএস জঙ্গিদের ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে তারা৷ দেশের প্রায় ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে দাপিয়ে বেড়াচ্ছিল তারা৷

Advertisement ---
---
-----