একই পরিবারের চারজনের রহস্য মৃত্যু! ফিরল বুরারি আতঙ্ক

ফাইল ছবি।

চণ্ডীগড়: রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু হল একই পরিবারের চার সদস্যের৷ হরিয়ানার পতৌদির ব্রিজপুরা গ্রামের ঘটনা৷ গ্রামে ফিরে এসেছে দিল্লির বুরারির সেই পরিবারের ১১ জনের আত্মহত্যার আতঙ্ক৷ বুধবার রাতে এই ঘটনা ঘটে৷ এই চারজনের মধ্যে তিনজনের দেহ গুরুগ্রাম পুলিশ বাড়ির ভিতর থেকে উদ্ধার করে৷ চতুর্থ জন এক বছরের শিশু৷ গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি করা হলে সেখানেই তার মৃত্যু হয়৷

গুরুগ্রাম থেকে ৫০ কিমি দূরে গুরগাঁওয়ের এই পতৌদি গ্রাম৷ স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে বাড়ির ভিতর ঢুকে এক মহিলাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে তারা৷ বাকি দুজন মাটিতে মৃত অবস্থায় পড়েছিল৷

আহত অবস্থায় শিশুটিকে হাসপাতালে পাঠানো হলেও বাঁচানো যায় নি তাকে বলে পুলিশের সূত্র জানাচ্ছে৷ এই ঘটনা প্রথম নজরে আসে এক দুধ বিক্রেতার৷ তিনি বাড়িতে ঢুকে দেখেন রক্তে ভেসে যাচ্ছে মেঝে৷ তাঁরই প্রথম নজরে আসে মৃতদেহগুলি৷

- Advertisement -

সঙ্গে সঙ্গে তিনি পুলিশে খবর দেন৷ পুলিশ এসে দেহগুলিকে ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে যায়৷ তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ প্রাথমিরভাবে পুলিশের অনুমান ওই পরিবারে একজন বয়স্ক মহিলা. তার ছেলে, পূত্রবধূ ও তাদের সন্তান থাকত৷ রিপোর্ট অনুযায়ী পূত্রবধূই তার শাশুড়ি ও স্বামীকে প্রথমে খুন করে৷ তারপর নিজের সন্তানকে হত্যার চেষ্টা করে৷ পরে নিজে আত্মহত্যা করে৷

কিন্তু কী কারণে পুরো পরিবারের ওপর মহিলার আক্রোশ ছিল, তা এখনও জানা যায়নি৷ ওই পরিবারের আত্মীয়দের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ৷ কথা বলা হচ্ছে পাড়ার প্রতিবেশীদের সঙ্গেও৷ দ্রুত এই ঘটনার সমাধানসূত্র বেরিয়ে আসবে বলে মনে করছে পুলিশ৷

Advertisement
---