গুজব নয়! ‘শেষের সে দিন’ কবে আসবে, জানিয়ে দিল NASA

ওয়াশিংটন: এই বুঝি একটা আস্ত গ্রহাণু এসে ধাক্কা মারল পৃথিবীকে। আর তাতেই সব শেষ! ধ্বংসের সেই দিনের ভবিষ্যদ্বাণী করে থাকেন অনেকেই। কখনও সেসব হয় গুজব, কখনই আবার থাকে যুক্তিও। তবে এবার নাসা এই ব্যাপারে কিছু মতামত দিল। ‘নিবিরু’ নামের একটি গ্রহাণুকে নিয়ে প্রায়ই এ ধরনের গুজব শোনা যায়। এবার সেরকমই একটি গ্রহাণু ঠিক কবে পৃথিবীর গায়ে ধাক্কা মারবে, সেটা জানাল নাসা।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানিয়েছে, Apophis নামের ওই গ্রহাণু ২০৩৬ সালে পৃথিবীর গায়ে ধাক্কা মারবে, যাতে মানবজাতি ধ্বংসের দিকে যেতে পারে। আইবি টাইমসের এই রিপোর্ট নিশ্চিত করেছেন নাসার ওয়াশিংটন হেডকোয়ার্টারের এক আধিকারিক ডুয়ান ব্রাউন।

নাসার বিজ্ঞানী স্টিভ চেসলে ও তাঁর টিম নাসার জেট প্রপালসান ল্যাবরেটরিতে গ্রহাণু সংক্রান্ত বিষয়ে গবেষণা চালাচ্ছে। সেই গবেষণায় উঠে এসেছে, ২০৩৬-এর ১৩ এপ্রিল পৃথিবী ও গ্রহাণুর সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে পারে। নাসার ওয়েবসাইটে একথা লেখা হয়েছে। তবে শুধুমাত্র ২০১৬-এই নয়, ২০২৯ ও ২০৬৮-তেও ওই গ্রহাণুর সঙ্গে সংঘর্ষের সম্ভাবনা রয়েছে। রাশিয়ান বিজ্ঞানীদের মতে, ২০২৯-এ খুব কাছ দিয়ে যাবে Apophis . মাত্র ৩২০০০ কিলোমিটারের মধ্যে দিয়ে চলে যাবে ওই গ্রহাণু।

- Advertisement -

তবে ১৯ নভেম্বর পৃথিবীর ধ্বংসের দিন বলে একটা গুজব তৈরি হয়েছিল। যেদিন নাকি ‘নিবিরু’ বা Planet X ধাক্কা মারবে পৃথিবীকে। তবে অবশ্যই সেটা নিছকই গুজব। কেউ আবার ১৫ অক্টোবর ধ্বংসের দিন ধার্য করেছিলেন। কেউ আবার বলেন, নিবিরু ইতিমধ্যেই পৃথিবীর কক্ষপথে ঢুকে পড়েছে।

Advertisement
---