স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ক্রিকেটার মহম্মদ শামির সঙ্গে তাঁর লড়াই সত্যের বনাম খ্যাতির৷ সত্য হল, স্ত্রী হাসিন জাহানকে অত্যাচার করেছেন শামি, এই অভিযোগ৷ এবং, তাঁকে ধর্ষণ করা হয়েছে, এমন অভিযোগও৷

কিন্তু শামি তাঁর অর্থ এবং খ্যাতির ‘প্রভাবে’ বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছেন বলেও অভিযোগ তুলছেন তাঁর স্ত্রী হাসিন৷ আর, তাঁর এই সততার লড়াইয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাশে চাইলেন এ বার হাসিন জাহান৷

- Advertisement -

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাংবাদিক সম্মেলন করে হাসিন জানিয়েছেন, তিনি সত্যের জন্য লড়াই করছেন৷ শামির কাছে অর্থ, খ্যাতি সবকিছুই রয়েছে৷ কিন্তু তাঁর কাছে রয়েছে শামির ‘কেচ্ছা’র সব সত্য প্রমাণ৷ কিন্তু এত প্রভাবশালী এই ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে একা লড়তে হচ্ছে তাঁকে৷ তাই মুখ্যমন্ত্রী যদি একবার তাঁর সঙ্গে কথা বলে সত্যিটা জানার চেষ্টা করেন, তা হলে লড়াই জোরদার হবে৷ মনের জোর পাবেন তিনি৷

মুখ্যমন্ত্রীকে পাশে পেতে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টাও করেছিলেন হাসিন৷ এমনই তিনি জানিয়েছেন৷ কিন্তু এখনও পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর কোনও কথা হয়নি বলেও তিনি আক্ষেপ করছেন৷ হাসিন বলেন, ‘‘এখনও মুখ্যমন্ত্রীর সাহায্য পাইনি৷ কেউ যোগাযোগ করেননি৷ ভেবেছিলাম, মুখ্যমন্ত্রী শুনলে হয়তো আমাকে ডেকে পাঠাবেন৷ তবে মনে হয় তিনি এখনও বিষয়টি জানেন না৷ জানলে নিশ্চই তিনি ডেকে কথা বলতেন৷’’

হাসিন এদিন ফের অভিযোগ করেন যে, শামি বিভিন্নভাবে তাঁকে হুমকি দিচ্ছেন৷ অন্যের নম্বর থেকে হোয়াটসঅ্যাপ কল করে হুমকির সুরে কথা বলছেন৷ তাই তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন৷ মেয়েকে নিয়ে বাড়িতে একা থাকতে ভয় হচ্ছে বলেই পুলিশের কাছে তিনি নিরাপত্তা চেয়েছেন৷

দিনকয়েক আগে একটি বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকারে শামি জানিয়েছিলেন, ঘরের ব্যাপার ঘরেই মিটিয়ে নিতে চান তিনি৷ এ দিন হাসিন পালটা বলেন, ‘‘কোনও সমঝোতার প্রশ্ন নেই৷ লড়াই করতে নেমেছি৷ একাই লড়ে যাব৷ কারণ আমার কাছে প্রমাণ রয়েছে৷ এ লড়াই সত্যের লড়াই৷ দেখতে চাই সত্যের জয় হয়, নাকি অর্থের জয় হয়৷ আমি হেরে গেলে নারীশক্তি হেরে যাবে৷’’

ফেসবুকের মাধ্যমেই শামির বিরুদ্ধে নিজের লড়াই শুরু করেছিলেন হাসিন৷ কিন্তু মামলা করার পর থেকে বিভিন্ন প্রোফাইল থেকে তাঁকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ৷ তাঁর চরিত্র হননের চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও তিনি অভিযোগ করছেন৷ এর পিছনে বিভিন্ন ফেক প্রোফাইলের মাধ্যমে শামির পরিবারের লোকেরা এই কাজ করছেন বলে অভিযোগ হাসিনের৷

----