মুকুল ম্যাজিক ভোঁতা করে ভোটের লড়াইয়ে স্বস্তিতে শাসক

দেবযানী সরকার, কলকাতা: লড়াইয়ের আগেই হেরে বসে আছে বিরোধীরা৷নোয়াপাড়া ও উলুবেড়িয়া বিধানসভার উপ-নির্বাচন সম্পর্কে এমনটাই অভিমত শাসকদলের৷ তাঁদের মতে, মুকুল ম্যাজিক ভোঁতা করে দেওয়ায় দুটি আসনেই বিজেপি কার্যত ব্যাকফুটে৷ তাছাড়া বাম-কংগ্রেস-বিজেপি বিরোধী ভোট কাটাকাটির অঙ্ক তো রয়েইছে৷ স্বভাবতই দুটি আসনে জয়ের বিষয়ে ১০০ভাগ নিশ্চিত তৃণমূলের ‘যুবরাজ’ অভিষেক বন্দ্যেপাধ্যায়৷

আরও পড়ুন- কেলেঙ্কারির নায়ক ‘বাচ্চা’ সন্দীপই নোয়াপাড়ায় ভরসা মুকুলের

বৃহস্পতিবার তৃণমূল ভবনে kolkata24x7কে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে অভিষেকের প্রত্যয়ী জবাব, ‘‘নোয়াপাড়ায় আমাদের প্রার্থীরা ৫০ হাজারের বেশি ব্যবধানে জয়ী হবেন৷ উলুবেড়িয়াতেও আগের বারের থেকে জয়ের ব্যবধান বাড়বে৷’’

- Advertisement -

একান্ত আলাপচারিতায় নেতৃত্বরা মানছেন- নোয়াপাড়ায় মুকুল রায়ের ম্যাজিক বানচাল না করতে পারলে সমস্যা হত৷ অনেক বেশি কঠিন লড়াইয়ের মুখোমুখি হতে হত৷ কারণ, দলগতভাবে প্রকাশ্যে মুকুল রায়কে পাত্তা না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও নোয়াপাড়ায় মুকুল রায়ের প্রভাবকে অস্বীকার করতে পারছেন না তৃণমূল নেতারা৷ তাঁদের কথায়, মুকুল রায় যেভাবে নোয়াপাড়ার দু’বারের তৃণমূল বিধায়ক মঞ্জু বসুকে প্রার্থী করার কৌশল নিয়ে মাস্টারস্ট্রোক দিয়েছিলেন, তাতে তাঁর এই ছক বানচাল না করলে সংশ্লিষ্ট আসনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের মুখোমুখি হতে হত দলকে৷

আরও পড়ুন- নোয়াপাড়ায় সিং পরিবারের বিরুদ্ধে মুকুলের ভরসা বাঙালিরা

দলের রাজ্যস্তরের এক নেতার কথায়, ‘‘মুকুল রায়ের ছক বানচাল করে কার্যত এক ঢিলে দুই পাখি মারা সম্ভব হয়েছে৷ মঞ্জু বসুকে দিয়ে পাল্টা সাংবাদিক বৈঠক করে একদিকে যেমন প্রকাশ্যে মুকুল রায়ে মুখ পোড়ানো গিয়েছে, ঠিক তেমনই অনভিপ্রেত এই ঘটনার জেরে বিজেপি কর্মীদের মনোবল অনেকখানি ভাঙা গিয়েছে৷ এর জেরে বিজেপির অন্দরের কোন্দলও বেড়েছে৷’’

উলুবেড়িয়া আসনে জনপ্রিয় এক গায়ককে প্রার্থী করার জন্য আসরে নেমেছিলেন মুকুল রায়৷ কিন্তু নোয়াপাড়া ইস্যুতে মুকুল রায়ের দৌলতে যেভাবে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বর মুখ পুড়েছে, তাতে উলুবেড়িয়া আসনেও মুকুল রায়ের কথা আর গুরুত্ব পাইনি৷ দুটি আসনেই বিজেপি সাংগঠনিক নেতৃত্বকে প্রার্থী করায় স্বস্তির শ্বাস শাসক শিবের৷

আরও পড়ুন- জয় সুনিশ্চিত ধরেই ভোটের ময়দানে সুনীল সিং

শাসকদলের এক নেতার কথায়, ‘‘এই মুহুর্তে রাজ্য কিছুটা হলেও গেরুয়া হাওয়া বইছে৷অন্যদিকে আমাদের দলেও আদি বনাম নব্যদের মধ্যে কোন্দল বিদ্যমান৷ এই পরিস্থিতিতে হেভিওয়েট কাউকে প্রার্থী করে বাজিমাত করতে চেয়েছিলেন মুকুল রায়৷ কিন্তু মঞ্জু বসুর দৌলতে আগাগোড়া মুকুল রায়কে পথে বসিয়ে আদতে আমাদের লাভই হয়েছে৷’’

স্বভাবতই, স্বস্তির হাওয়া শাসক শিবিরে৷

Advertisement ---
---
-----