স্টাফ রিপোর্টার, রায়গঞ্জ: সহপাঠীদের সঙ্গে খেলতে গিয়ে মায়ের বকুনি শুনে অভিমানে আত্মঘাতী তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী৷ ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ থানার সাহেবঘাটায়। মৃত শিশুর নাম নূর আলম(৯)৷

গতকাল বিকেল বাড়ির পাশেই একটি পুকুরের ধারে পাড়ারই সহপাঠীদের সঙ্গে গাছে দড়ি বেধে ঝোলাঝুলি খেলছিল নবছরের ছোট্ট ছেলে নূর আলম। পুকুরের ধারে খেলছিল দেখে যাতে কোনও অঘটন না হয় সেজন্য মা আমিনা বিবি ছেলেকে বকাঝকা দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দিয়ে নিজে প্রতিবেশীদের সঙ্গে গল্প করছিলেন।

Advertisement

ঘণ্টা খানেক বাদে মা বাড়ি গিয়ে দেখেন বারান্দার ছাউনির কাঠের সঙ্গে দড়ির ফাঁস লাগিয়ে ঝুলছে। কান্নায় ভেঙে পরেন মলমা আমিনা। এতটুকু ছোট্ট ছেলে কেন এবং কিভাবে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করল কিছুই বুঝে উঠতে পারছেন না পরিবারের লোকজন ও প্রতিবেশীরা। এই ঘটনায় হতভম্ব হয়ে পরেছেন তারা। শোকের ছায়া নেমে এসেছে সাহেবঘাটা গ্রাম জুড়ে।

----
--