মহার্ঘভাতা আইনি অধিকার, বলল হাইকোর্ট

ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: DA মামলায় বড়সড় জয় রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের৷ স্যাটে (স্টেট অ্যাডিমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনাল) রায়কে সরাসরি খারিজ করে ডিএ সরকারি কর্মচারীদের আইনি অধিকার বলে রায় দিলেন হাইকোর্টের বিচারপতি দেবশিস কর গুপ্তের ডিভিশন বেঞ্চ৷ তবে কেন্দ্রের সমান ডিও পাওয়ার বিষয়টি পুনর্বিবেচনার জন্য স্যাটের কাছেই পাঠাচ্ছে হাইকোর্ট৷

ডিএ মামলায় হাইকোর্টের রায়ের উপর একবার নজর দেওয়া যাক-

-রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ডিএ দিতে বাধ্য রাজ্য সরকার

- Advertisement -

-২০০৯ সালের রোপো আইন মেনেই ডিএ পাবেন সরকারি কর্মী

-২০০৮ সালে পে কমিশনের সুপারিশ মেনে সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘভাতা দেওয়া হয়েছিল, সেই নিয়ম মেনেই ডিএ দেওয়া হবে৷

তবে স্যাটের বিরুদ্ধে দুটি প্রশ্ন ছিল-
কেন্দ্র ও রাজ্যের ডিএ-র বৃহৎ ফারাক কেন? পাশাপাশি, দিল্লিতে ও চেন্নাইয়ের কর্মরত রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ডিএ কেন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের সমান দেওয়া হচ্ছে? সেক্ষেত্রে

এই দুটি বিষয় নিয়ে রাজ্য সরকার স্যাটের কাছে মামলা দায়ের করবে তিন সপ্তাহের মধ্যে এবং মামলার নিষ্পত্তি ২ মাসের মধ্যে করতে হবে স্যাটকে৷ এক্ষেত্রে মামলাকারীরা যদি ফের হলফনামা দিতে চায় তাহলে তা শুনানির দিনই দিতে হবে৷

শুক্রবার ১৭ মাস পর হাইকোর্ট ডিএ মামলার শুনানি হয়৷ ২০১৭ সালের ২৪ জুলাই মামলার রায় স্থগিত রেখেছিলেন বিচারপতি দেবশিস কর গুপ্তের ডিভিশন বেঞ্চ৷

স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিঊ ট্রাইবুনালে (স্যাট) মামলার শুনানির সময় রাজ্য সরকার জানিয়েছিল, সরকারি কর্মচারীদের ডিএ রাজ্য সরকারের দান৷ যা রাজ্য সরকার দিতেও পারে নাও দিতে পারে৷ সরকারের ইচ্ছের উপরই ডিএ নির্ভরশীল বলে জানান হয়৷ এরই বিরুদ্ধে হাই কোর্টে তিনটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়৷ সেই তিন মামলার প্রেক্ষিতে ডিএ নিয়ে আজ রায়দান করল হাইকোর্ট৷ মামলা দায়েরকারী কো-অর্ডিনেশন কমিটির পক্ষের আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য সরকারে বিপক্ষে গিয়ে সওয়াল করেন৷

Advertisement ---
---
-----