#Section377:সমকামিতা অপরাধ নয়, বাতিল ৩৭৭: সুপ্রিম কোর্ট

নয়াদিল্লি: সমকামী লড়াইয়ের ঐতিহাসিক ইতি৷ সুপ্রিম কোর্টের স্পষ্ট রায়, সমকামীতা অপরাধ নয়৷ সমকামীতার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৭ ধারাও বাতিল করল সুপ্রিম কোর্ট৷ মামলার পর্যবেক্ষণ আগেই হয়েছিল, রায় দিতে তাই সময় নিলেন না প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বাধীন ৫ সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ৷ রায়দানে পরিচ্ছন্নতা ছিল চোখে পড়ার মতই৷ কোনওরকম ফাক না রেখে সুপ্রিম কোর্টের রায় ইতিহাস সৃষ্টিকারী৷

সমকামী নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়–

– ‘Take me as I am’, রায়দান প্রক্রিয়ার শুরুতেই বক্তব্য প্রধান বিচারপতির বেঞ্চের৷ তারপরই, ঘোষণা, ৩৭৭ ধারা বাতিল করে সমকামী স্বীকৃত৷ এক্ষেত্রে ৩৭৭ ধারাকে ‘নিষিদ্ধ’ করল শীর্ষ আদালত৷ চোখে চোখ রেখে সমকামীরা বাঁচতে পারবেন সমস্ত সামাজিক প্রতিকূলতাকে কাটিয়ে৷

- Advertisement -

স্বতন্ত্রতার অধিকার প্রত্যেকের৷ সেই ব্যক্তিগত স্বতন্ত্রতা সমকামীদের জন্যও, তারা এই সমাজের, এই দেশেরই অংশ৷ স্ব-ইচ্ছায় যৌন সম্পর্ক কোনওভাবেই অপরাধ নয়, সমকামীরাও স্বতন্ত্র, স্বাধীন৷

জীবন বাঁচার অধিকার প্রত্যেকের-মৌলিক অধিকারের ২১ নং ধারা অনুসারে সেই অধিকার সমকামীদেরও৷ ১৪,১৯, ২১ নং মৌলিক অধিকার পর্যবেক্ষণ করেই রায় প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের৷

সমকামীদের যৌন ইচ্ছা প্রাকৃতিক ও বিজ্ঞানসম্মত– আদালত সাফ জানায়, সমকামীদের যৌন সম্পর্ক কোনওভাবেই বিকৃত নয়৷ এই সম্পর্ককে এত বছর ধরে বিকৃতির তকমা দেওয়া হয়েছে৷ দুটি মানুষ নিজের ইচ্ছে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হচ্ছেন, সেখানে সমাজ বলার কে? কড়া প্রশ্ন দীপক মিশ্রের

এলজিবিটি কমিউনিটির সমাজে সমান অধিকার রয়েছেএলজিবিটিদের সমান অধিকার না দিলে সুপ্রিম কোর্ট নিজেকেই অপদার্থ প্রতিপন্ন করবে বলে জানায় প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ৷

প্রানীদের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক অপরাধ– সমকামী বা অসমকামী কেউই প্রানীদের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করলে তা অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে৷

পড়ুন:ঐতিহাসিক রায় শুনেই আনন্দ-কান্নায় ভেঙে পড়লেন ওরা

সমস্ত সামাজিক স্বীকৃতি সমকামীদের প্রাপ্য– সামাজিক নিয়মে বিয়ের অধিকার, সন্তান দত্তক নেওয়ার অধিকার রয়েছে সমকামীদের৷

রায়ের শেষ সমকামী, এলজিবিটি কমিউনিটির কাছে ক্ষমা চান প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ৷ ১৮৬১ সাল থেকে চলা নিয়মকে গ্রাহ্য মেনেই সমকামীদের সমাজে নানারকম অসম্মানের মুখে পড়তে হয়েছে৷ অনেকেই আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছেন৷ সমকামী- যে আসলে স্বাভাবিক যৌন প্রক্রিয়া তা মেনে নিতে পারেনি সমাজ৷ সেই মেন নিতে না পারার রক্ষণশীলতাই আজ মুখ থুবরে পড়ল৷ জয় হল মানবাধিকারের,বিস্তৃত হল ভালোবাসার অধিকারও৷

Advertisement ---
-----