সম্পর্কের টানাপোড়েনে নৃশংসভাবে খুন ইশরত জাহান

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: শহরে নৃশংসভাবে গলা কেটে খুন করা হল এক গৃহবধূকে৷ ঘটনার পর থেকে পলাতক স্বামী৷ বন্দর এলাকার রাজাবাগান থানা এলাকার ডাঃ একে রোডে ঘটনাটি ঘটেছে৷

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত গৃহবধূর নাম ইসরাত জাহান (৩৬)৷ মঙ্গলবার দুপুরে ওই এলাকায় একটি ভাড়াবাড়িতে তাঁকে গলাকাটা অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়৷

আরও পড়ুন: ভালবাসার দিনে ‘পিরিতে’ মজবে দুই বাংলা

- Advertisement DFP -

তাঁর গলার ডানদিকে এবং হাতে ক্ষতচিহ্ন রয়েছে৷ গলা এবং হাতের শিরা কেটে তাঁকে খুন করা হয়েছে বলে অনুমান পুলিশের৷ ঘটনার পর থেকে পলাতক তাঁর দ্বিতীয় পক্ষের স্বামী মহম্মদ সালাউদ্দিন পলাতক৷ সালাউদ্দিনই ইসরাতকে খুন করে পালিয়েছে বলে পুলিশের অনুমান৷

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, প্রথম পক্ষের স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর পেশায় অটোচালক সালাউদ্দিনকে বিয়ে করেন ইসরাত৷ বিয়ের পর পেশায় অটোচালক সালাউদ্দিন ও ইসরাত সঙ্গে দু’মাস আগে রাজাবাগান এলাকার একটি বাড়িতে ভাড়া আসে৷ ইসরাতের একটি ১৩ বছরের এবং একটি ছ’বছরের সন্তান রয়েছে৷

আরও পড়ুন: তোলাবাজির অভিযোগে গ্রেফতার ভারতী ঘনিষ্ট পুলিশ অফিসার

তারাও একসঙ্গেই থাকত৷ এদিন সকালে বাড়ি থেকে কোনও সাড়াশব্দ না মেলায় প্রতিবেশীরা খোঁজ করতে গিয়ে দেখেন মেঝেতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে ইসরাত৷ তারপর রাজাবাগান থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়৷ ছুরি জাতীয় কোনও ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলা কাটা হয়েছে বলে পুলিশের অনুমান৷

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জেনেছে, ইসরাতের অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে বলে সন্দেহ ছিল সালাউদ্দিনের৷ সেই নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়াও হত৷ সেই কারণেই খুন করা হয়েছে বলে পুলিশ মনে করছে৷

আরও পড়ুন:  ছেলেরা তো কাত! কি বলছে এ শহরের মেয়েরা?

Advertisement
----
-----