ব্লাডপ্রেশার high? নিয়ন্ত্রণে রাখতে অবশ্যই খান এই খাবারগুলি

সারাদিনের কর্মব্যস্ত জীবন৷ অফিস হোক বা বাড়ি এক মিনিটও ফুরসত নেই৷ সঙ্গে হাজারো টেনশন বাড়াচ্ছে রক্তের চাপ৷ রোজকার জীবনের মুখোমুখি তো দাঁডা়তেই হবে আপনাকে৷ এবং তা নিজেকে সম্পূর্ণ সুস্থ রেখে৷ আপনাদের জন্য এমন কিছু খাবারের সন্ধান যাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম৷ আপনার উচ্চ রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণও করবে৷

তালিকায় রয়েছে মিষ্টি আলু, অ্যাভোকাডো, বিনস, মটরশুটি, কলা৷ এমনকী মেপে কফি খেলেও তা আপনার উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করবে৷ এ কোনও হাওয়ায় ভাসানো কথা নয়৷ ক্যালিফোর্নিয়ার একটি বিশ্ববিদ্যালয় এই নিয়ে রীতিমত গবেষণা করেছিল৷ সেখানে দেখা গিয়েছে, প্রয়োজনের বেশি সোডিয়াম শরীরের ভিতর না যাওয়াই ভালো৷ এক্ষেত্রে পটাশিয়ামযুক্ত খাবারের পরিমাণ বাড়ালে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা অনেকটাই সহজ হবে৷

উচ্চ রক্তচাপ বা হাই ব্লাড প্রেশার কিন্তু বড় বিপদের হাতছানি দেয়৷ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংগঠন WHO’র তথ্য বলছে, যেসব মানুষ স্ট্রোকের কারণে প্রাণ হারান তাঁদের মধ্যে ৫১ শতাংশ মৃত্যুতেই উচ্চ রক্তচাপ অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়ায়৷ এছাড়া ৪৫ শতাংশ ক্ষেত্রে দেখা যায় হার্টের কোনও সমস্যা মৃত্যুর কারণ৷

- Advertisement -

উচ্চ রক্তচাপ কমাতে পটাশিয়ামের ভূমিকা বেশ তাৎপর্যপূর্ণ৷ কারণ পটাশিয়ামযুক্ত খাবার সরাসরি আপনার উচ্চ রক্তচাপকে মুঠোর মধ্যে রাখতে সক্ষম৷ তাই আপনার রোজকার খাদ্যতালিকায় যত বেশি পটাশিয়ামযুক্ত খাবার রাখবেন ততই ভালো৷ কিডনিও ঠিকমতো কাজ করবে৷

তবে প্রত্যেক মানুষের শরীরের জন্য কোনওকিছুই মাত্রাতিরিক্ত ভালো নয়৷ তাই আপনাকেও খেয়াল রাখতে হবে কতটা পটাশিয়াম আপনার শরীরের জন্য যথাযথ৷ সাধারণত বলা হয় প্রাপ্তবয়ষ্করা দিনে ৪.৭ গ্রাম পটাশিয়াম অবশ্যই নিন৷

শুধুমাত্র রক্তচাপকেই নিয়ন্ত্রণ নয়, আপনার হার্টও সুস্থ রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে পটাশিয়ামের৷ সঙ্গে হাড়ের ক্ষমতা ও পেশির ক্ষমতাও বাড়াবে পটাশিয়াম৷ এর অভাবে ক্লান্তি, দুর্বলতা, কোষ্ঠকাঠিন্যর মত সমস্যায় ভুগতে হতে পারে৷ তাই সম্ভব হলে ব্রেকফাস্ট মেনুতে কমলালেবুর রস রাখুন৷ রোজকার খাবারের সঙ্গে নিয়ম করে মুখে তুলুন কিসমিস, আম, কমলালেবু, নাসপাতি, রাঙা আলু৷

Advertisement
---