সূর্যের তাপ থেকে চুল বাঁচাতে উপায়

পুজোর মরশুম চলে এলো৷ মাসখানেক পরই শুরু হবে পুজোর আনন্দ, সাজগোজ, ঠাকুর দেখা, খাওয়া দাওয়া৷ পুজোর শপিং তো ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে অনেকে৷ এমনকি অনেকের শপিং শেষের দিকে৷ সাজগোজ যেহেতু খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়৷ সেখানে ত্বক, চুল, হাত-পা সবেরই খেয়াল রাখতে হয়৷ ত্বকের খুঁত না হয় আপনি মেকআপে দিয়ে ঢাকলেন, কিংবা ঘরোয়া পদ্ধতিতে সেইসব সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন৷ কিন্তু চুলের কী করবেন৷

স্প্লিট হেয়ার, রুক্ষতা, তুল পড়া সবকিছু এক মাসে রোধ করা বেশ কঠিন৷ এমনটাই ভাবছেন তো? যতটা কঠিন ভাবছেন ততটাও কঠিন নয়৷ সূর্যের প্রখর তাপ থেকে কীভাবে চুলকে বাঁচাবেন? কারণ সূর্যের তাপেই আপনার চুল সবচেয়ে বেশি নষ্ট হয়৷ সঙ্গে ধুলোবালি তো রয়েছেই৷ স্কার্ফ দিয়ে ত্বক চাপা দিলেও চুল রক্ষা করা হয় না৷ তাই এই সামান্য নিয়মগুলি অনুসরণ করলেই সূর্যের প্রখর তাপ থেকে রক্ষা পাবে আপনার চুল৷ নিয়মিত তেল লাগান৷ সূর্যের প্রখর রশ্মি আপনার চুলের রঙ, শাইন ছিনিয়ে নেয়৷ তা ফিরিয়ে আনতে অবশ্যই সপ্তাহে তিনবার তেল লাগান৷

ওপর ওপর লাগবেন না৷ স্ক্যাল্পে ভালো করে মাসাজ করুন৷ আর অবশ্যই শ্যাম্পু করবেন৷ তেল মাথায় বেরলে ধুলো আরও বেশি করে আটকাবে৷ সারাদিন বাইরে থেকে যে ধুলো বালি চুলে জমে যায়, তা স্টিকিনেসের জন্য চুল থেকে সহজে ছাড়তে যায় না৷ আঠালো হয়ে গিয়ে স্ক্যাল্পে ময়লা বসে যায়৷ তাই এমন ভাবে শ্যাম্পু করুন যাতে আপনার চুলের প্রত্যেকটা জায়গায় সঠিক মাসাজ হয়৷ শ্যাম্পু যেন ভালো করে চুলের এবং স্ক্যাল্পের প্রতিটা অংশে পৌঁছয়৷ শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার মাস্ট৷ অনেকেই ভাবেন কন্ডিশনার হয়তো আপনার চুলকে আরও রুক্ষ করে তুলছে৷ কিছু কন্ডিশনার শুষ্ক করে ঠিকই কিন্তু দামী কন্ডিশনার কিনলে আপনাকে এমন কিছু ভোগ করতে হবে না৷ শ্যাম্পু ভালো করে ধুয়ে ভালো করে কন্ডিশনার লাগিয়ে নিন৷ এতে আপনি আশানুরূপ ফল পাবেন৷ চুলের আগা কাটা খুব জরুরি৷ যখনই দেখবেন চুলের আগা দুমুখো হয়ে যাচ্ছে সেই মুহূর্তেই চুলের আগা কেটে ফেলুন৷ নয়তো সেই একটা দুমুখো চুল থেকে বাকি চুলগুলোও নষ্ট হয়৷

- Advertisement -

এছাড়া আগা নষ্ট না হলেও তিন-চার মাসে এক-দুই ইঞ্চি করে চুল কাটা প্রয়োজন৷বেরোবার আগে অবশ্যই সিরাম লাগান৷ সিরাম না লাগাতে চাইলে ভালো করে একটি স্কার্ফ দিয়ে পুরো চুলটা জড়িয়ে নিন৷ এতে ধুলোবালি কম ঢুকবে, সূর্যরশ্মিও পড়বে না৷ জল খাওয়া ত্বকের পক্ষে ভালো তো শুনেছেন কিন্তু চুলের জন্যও একই রকম ভাবে উপকারী পরিমাণ মতন জল৷ সঠিক খাবারও আপনার চুলে অনেকটা প্রভাব ফেলে৷ বেশি করে চল খেলে আপনার চুলের শুষ্কতা দূর হবে৷
# ঘরের বাইরে বেরোনোর সময় চুলে একটা রুমাল কিংবা ওড়না বেঁধে বেরোবেন। এতে করে চুলে ধুলো হবে কম। সেইসঙ্গে সূর্যের তাপও কম লাগবে।

Advertisement ---
---
-----