শিল্পীদের ‘হৃদমাঝারে’ নতুন আকাশের খোঁজ

ছেলের মুখে তালে তালে চিতল মাছের মুইঠ্যার কথা শুনেই খরাজ মুখোপাধ্যায় লিখে ফেলেছিলেন তাঁর বিখ্যাত গান ‘হায় বাঙালি হায়’৷ আবার নচিকেতা চক্রবর্তী লোকগান নিয়ে এমন কিছু বললেন যা নাকি অনেকেরই পছন্দ হবে না৷ শুভমিতা আরও একবার অকপটে স্বীকার করলেন ‘গডফাদার’ নচিকেতার কথা৷ যাঁর সামনে এমন করে মনের কথা বলে ফেলছেন শিল্পীরা, তিনি পণ্ডিত তন্ময় বোস৷ তালবাদ্যে হাত রেখেই এই প্রথম তিনি উপস্থাপকের ভূমিকায়৷ তাঁর যেমন নতুন রূপে আত্মপ্রকাশ, তেমন বাঙালির চেনা শিল্পীরাও নিজেদেরকে মেলে ধরছেন অন্য পরিচয়ের আকাশে৷ গানে-সুরে-বাজনায়-আলাপে হৃদয়ের দরজা খুলতেই আকাশ আটের নতুন অনুষ্ঠান ‘হৃদমাঝারে’৷

আসল কারণ হল তন্ময় আমাকে গজল গাওয়ার লোভটা দেখিয়েছে৷’’  উপস্থাপক হিসেবে নতুন ভূমিকায় অভিষেকের পর পণ্ডিত তন্ময় বোস জানালেন, ‘‘ আসলে সব শিল্পীদের সঙ্গে আমার সম্পর্কের সূত্রটি হল গানবাজনা৷ আমি তো কনভেনশনল উপস্থাপক নই, একজন শিল্পীবন্ধু হিসেবে ওঁদের আমি যেভাবে চিনি সেটাই তুলে আনার চেষ্টা করছি৷ সেইসঙ্গে আমার মনে যা যা প্রশ্ন আসছে সেগুলো আমি করতে পারছি৷’’ অনুষ্ঠানের পরিচালক সুপ্রিয় ঘোষ জানালেন, ‘‘এই অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্যই হল শিল্পীদের দুনিয়ায় অন্য এক আকাশের খোঁজ৷ মানুষের কাছে অনেক শিল্পীরই একটা বাঁধাধরা ছবি থেকে যায়৷ কিন্তু তার বাইরেও শিল্পীদের আর পরিচয় থাকে তা আন্তরিক আলাপনে তুলে আনতে পারাই এই অনুষ্ঠানের সার্থকতা৷’’[caption id="attachment_420411" align="alignright" width="655"]হৃদমাঝারে ত্রয়ী৷ছবি-মিতুল দাসহৃদমাঝারে ত্রয়ী৷ছবি-মিতুল দাস

গান, গানের গল্প, শিল্পীর মন ও মননের নয়া আকাশেই ভরে উঠছে হৃদমাঝার৷ সারা সেট জুড়ে যে বাঙালিয়ানা ও লোকায়তের ছোঁয়া তারই অনুরণন যেন সুরেও৷ ১০ ডিসেম্বর থেকে সঙ্গীতপ্রেমীদের সাক্ষী হতে পারবেন এই অভিজ্ঞতার৷   

- Advertisement -

সরোজ দরবার 

Advertisement
---