ফ্রেন্ডশিপ ডে রেভ পার্টি থেকে আটক বহু পড়ুয়া

কানপুর: ফ্রেন্ডশিপ ডে পালন করার জন্য রেস্টুরেন্টে আহ্বান জানানো হয়েছিল সাধারণকে। ওই বিশেষ দিনের জন্য বিনোদনের নানাবিধ ব্যবস্থা করেছিল রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ। আয়োজন করা হয়েছিল রেভ পার্টির। আর তাতেই ঘটল বিপত্তি।

আরও পড়ুন- চলতি মাসে সাড়ে ছ’শ ব্রাঞ্চের নতুন ব্যাংক উদ্বোধন করবেন মোদী

গত রবিবার রাতে ওই রেভ পার্টি থেকে পাকরাও করা হয়েছে ৭০ জনেরও বেশি ছেলেমেয়েকে। যাদের অনেকের বয়স ১৮-র নিচে বলে দাবি করেছে পুলিশ। রেস্টুরেন্ট থেকে উদ্ধার হয়েছে নানান রকমের প্রচুর নেশার সামগ্রী। ধৃতেরা সকলেই অভিজাত পরিবারের প্রতিনিধি বলে দাবি করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন- লাগামহীন অটোভাড়া নিয়ে অভিযোগ তুলে বিধাননগরে অবরোধ নিত্যযাত্রীদের

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের কানপুর শহরে। ওই শহরের সিভিল লাইনস এলাকায় অবস্থিত দ্যা হেড কোয়ার্টার রেস্টুরেন্ট। সেখানেই বসেছিল রেভ পার্টির আসর। সেই আসরে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ বিদেশি সিগারেট, হুক্কা এবং মদ উদ্ধার করা হয়েছে। বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে রেস্টুরেন্টের লাইসেন্স।

আরও পড়ুন- শান্তিপূর্ণ বকরিদ পালনে বিপ্লবই ভরসা সংখ্যালঘু মুসলিমদের

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কানপুর এলাকায় সিভিল লাইনস এলাকায় দ্যা হেড কোয়ার্টার রেস্টুরেন্ট চালু হয়েছে খুব বেশিদিন হয়নি। এই রেস্টুরেন্ট চালুর পর থেকেই সেখানে শুরু হয়ে যায় অল্প বয়সী ছেলেমেয়েদের আনাগোনা। নিত্যদিন চলত উদ্যাম মদের আসর। খদ্দেরদের অধিকাংশই চস্কুল বা কলেজ পড়ুয়া। তাদের উদ্যাম জীবনযাপন নজর পড়েছিল স্থানীয়দের। খবর যায় পুলিশের কাছেও।

রবিবার ফ্রেন্ডশিপ ডে উপলক্ষে ওই রেস্টুরেন্টে বড় কিছু হবে তা আঁচ করতে পেড়েছিল পুলিশ। সেই লক্ষ্যেই অভিযান চালানো হয় যাথা সময়ে। রেস্টুরেন্টের ভিতরে চক্ষু চড়কগাছ অবস্থা পুলিশের। স্কুল-কলেজে পড়া ছেলেমেয়েরা বুঁদ হয়েছে নেশায়। অনেকের হুঁশ নেই। আশেপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে নানান রকমের নেশার সামগ্রী। সেখান থেকেই আটক করা হয় ৭০ জন ছেলেমেয়েকে।

আরও পড়ুন- লিঙ্গ পরিবর্তন করতে চাইলে রূপান্তরকামীদের ২ লক্ষ দেবে সরকার

রেস্টুরেন্ট চালু হওয়ার পর থেকেই চলছিল এই অনৈতিক কাজ। তবুও স্থানীয় পুলিশ কোনও ব্যবস্থা নেয়নি বলে অভিযোগ করেছে স্থানীয় বাসিন্দারা। কানপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সতীশ পাল জানিয়েছেন যে অভিযুক্ত সকলের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন- বাংলাদেশকে পাশে থাকার বার্তা দিয়ে পথে নামছে কলকাতা

যদিও রেস্টুরেন্টে কোনও অনৈতিক বা বেআইনি ক্রিয়াকলাপ কখনও হয়নি বলে দাবি করেছেন দ্যা হেড কোয়ার্টার রেস্টুরেন্টের মালিক সুমিত চাওলা। তাঁর মতে, “কোনও অনৈতিক কিছুই করা হয়নি। অন্য সকল রেস্টুরেন্ট যভাবে চলে দ্যা হেড কোয়ার্টার সেভাবেই পরিচালনা করা হতো।” মদ বা নেশার সামগ্রী বিক্রির জন্য উপযুক্ত লাইসেন্স তাঁদের ছিল বলেও দাবি করেছেন সুমিত। তাই বলে স্কুল পড়ুয়াদের মদ বিক্রি? এই বিষয়ে তাঁর বক্তব্য, “কোনও নাবালক ব্যক্তিকে কোনও নেশার সামগ্রী বিক্রি করা হয়নি।”

Advertisement
----
-----