সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা : ‘ভগবান যা করেন মঙ্গলের জন্য করেন’। সত্যি, কলকাতার জন্য করেন না। টানা তিনটি মহাজাগতিক ঘটনার সাক্ষী থাকার সুযোগ নষ্ট কলকাতার। অর্ধ সূর্যগ্রহণ, পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ। এবার মঙ্গলের সব সবথেকে কাছে আসা। সেটিও দেখা হবে না কলকাতাবাসীর। ভিলেন মেঘ।

কলকাতার ভাগ্যে মঙ্গল দর্শন নেই। এমনটাই জানা যাচ্ছে জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের সূত্রে। পাশাপাশি আবহাওয়া দফতরই তেমন খবরই জানাচ্ছে। দেড় দশক পর ফের এক মহাজাগতিক ঘটনা ঘটতে চলেছে মঙ্গলবার। ১৫ বছর পর এদিন পৃথিবীর সবথেকে কাছে চলে আসছে মঙ্গলগ্রহ। কিন্তু ঘূর্ণাবর্ত ও অক্ষরেখার জেরে কলকাতার আকাশ থাকছে মেঘে ঢাকা। হচ্ছে বৃষ্টিও। তাই এবারও মহাজাগতিক দৃশ্য থেকে বঞ্চিতই থাকবে মহানগর।

Advertisement

সপ্তাহখানেক আগে সূর্যগ্রহণ হয়। সেবার গ্রহণ দেখা হয়ে ওঠেনি কলকাতার। কারন ভারতসহ কলকাতার অবস্থান সম্পূর্ণ বিপরীত গোলার্ধে। অক্ষরেখাও আলাদা। তাই ভারত এবং প্রশান্ত মহাসাগরে আংশিক সুরজগ্রহনের দেখা মিললেও মহাজাগতিক দৃশ্য দেখা হয়নি শহরের। ২৭ জুলাই বিশ্বের সর্বত্র দৃশ্যমান হয়েছিল চন্দ্রগ্রহণ। বিশাল লাল চাঁদকে প্রায় দেড় ঘণ্টার বেশি সময় ধরে গিলে খেয়েছিল ‘রাহু’। ভারতের বিভিন্ন রাজ্য থেকে দেখা গেলেও কলকাতার ভাগ্যে গ্রহণ দর্শন ছিল না। বঙ্গোপসাগরের উপর নিম্নচাপের জেরে গত সপ্তাহে রাজ্যজুড়ে ভারি বৃষ্টি চলছিল।

স্বাভাবিকভাবেই হাজির ছিল প্রচুর মেঘ। এবারেও ঘটনা একই। নিম্নচাপ অক্ষরেখা রয়েছে ভারতের পূর্ব দিকে। সেটি গিয়েছে উত্তরপ্রদেশ, অসম , বিহার হয়ে পশ্চিমবঙ্গের হিমালয়ের পাদদেশের উপর দিয়ে। পাশাপাশি ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে বাংলাদেশ এবং গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর। এই ঘূর্ণাবর্ত মিলেছে নিম্নচাপ অক্ষরেক্ষার সঙ্গে। এর জেরে কলকাতাসহ রাজ্যের প্রত্যেকটি জেলায় মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টি চলছে। ফলে জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, এমনিতেই ভারতে খুব স্পষ্ট দেখা যাবে না কাছে আসা মঙ্গল গ্রহকে। মেঘে ঢাকা আকাশ থাকলে সেই সম্ভাবনা আরোই কম। আগামী ২৪ ঘণ্টাতেও একই পরস্থিতি জারি থাকবে। তাই মঙ্গল কাছে থাকলেও তা আগামী ২৪ ঘণ্টাতেও তার দেখা পাওয়া প্রায় অসম্ভব।

৩১ জুলাই, মঙ্গলবার পৃথিবী ও মঙ্গলের দূরত্ব হবে ৫৭.৮ মিলিয়ন কিলোমিটার। পৃথিবীর একদিকে থাকবে সূর্য আর অন্যদিকে লালগ্রহ। সূর্য ও দুই গ্রহ অবস্থা করবে একই সরলরেখায়। ২০২০ পর্যন্ত পৃথিবীর এতটাই কাছে অবস্থান করবে মঙ্গল। তবে, মঙ্গলবার সন্ধেয় যে দৃশ্য দেখা যাবে অর্থাৎ মঙ্গলকে যতটা স্পষ্টভাবে দেখা যাবে, সেটা ১৫-১৭ বছরের মধ্যে প্রথম।

এদিন লালগ্রহকে সবথেকে বেশি উজ্জ্বল দেখাবে। সাদার্ন হেমিস্ফেয়ার থেকে সবথেকে ভালভাবে দেখা যাবে এই দৃশ্য। অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আমেরিকা ও আফ্রিকা থেকে সবথেকে বেশি ভালভাবে দেখা যাবে মঙ্গলকে।

----
--