মমতার বাংলায় ‘বন্দেমাতরম’-‘ভারত মাতা’র জয়গান তুলে বিজেপিতে যোগ মুসলিমদের

সৌমেন শীল, বাগদা: মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষেরা বলছেন বন্দেমাতরম। একইসঙ্গে স্লোগান দিচ্ছেন ভারত মাতার জয়। হাতে রয়েছে বিজেপির দলীয় পতাকা। মোদীর রাজ্য গুজরাত বা যোগীর রাজ্য উত্তর প্রদেশ নয়। এই ছবিটি পশ্চিমবঙ্গের বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বাগদা এলাকায়।

আরও পড়ুন- স্ত্রী-সন্তানের নাম রাখব ‘ভারত মাতা কি জয়’: কানহাইয়া

চলতি মাসের ১৩ তারিখে সীমান্ত লাগোয়া বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত বাগদা এলাকায় মুসলিম সম্প্রদায়ের বহু মানুষ যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। রাজ্যের মহিলা মোর্চার নেত্রী বিভা মজুমদারের হাত থেকে তাঁরা ভারতীয় জনতা পার্টির দলীয় পতাকা হাতে তুলে নেন। উপস্থিত ছিলেন বাগদা মন্ডলের বিজেপি সম্পাদক দিলীপ সরকার। সেই সময়েই তাঁরা সকলে কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপির নামে জয়ধ্বনি দিতে থাকেন। একইসঙ্গে তাঁদের মুখেই শোনা গিয়েছে বন্দেমাতরম এবং ভারত মাতার জয় স্লোগান। ভারতের মাটিতে মুসলিম সম্প্রদায়ের মুখে এই দুই স্লোগান শুনতে পাওয়া বিরল ঘটনার সমান।

আরও পড়ুন- ‘ভারত মাতা কি জয়’ স্লোগান নিয়ে দোলাচলে কংগ্রেস

ধর্মীয় কারণের অজুহাত দেখিয়ে বন্দেমাতরম স্লোগান দেয় না ভারতের মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষেরা। এই স্লোগান দেওয়ার অর্থ ইসলামের অবমাননা করা। এমনই দাবি করে থাকেন ইসলামিক ধর্মগুরু এবং বিভিন্ন নেতারা। একইরকমভাবে মারত মাতার জয় স্লোগানটিও মুসলিম সমাজের কাছে অপছন্দের। তাঁর অন্যতম একটা বড় কারণ হচ্ছে এটি বিজেপির স্লোগান। রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘের ভাবধারায় পরিচালিত ভারতীয় জনতা পার্টি ঘোরতরভাবে মুসলিম বিরোধী। এমনই ধারণা ছড়িয়ে রয়েছে মসুলিমদের মনে। ভারতের মুসলিম সমাজের মুখ হিসেবে দাবি করা এআইএমআইএম প্রধান আসাদুদ্দিন ওয়াইসি বহুবার বলেছেন, “আমরা মুসলিমরা ধর্মীয় কারণে বন্দেমাতরম বলতে পারব না। একইসঙ্গে ভারত মাতার জয় স্লোগান আমরা দেব না। কারণ ওটা বিজেপির স্লোগান। জয় হিন্দ বলতে কোনও সমস্যা নেই।” সেই দেশেই উলটো পথে হেটে নজির গড়ল বাগদা এলাকার মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষেরা।

আরও পড়ুন- ‘ভারত মাতা কি জয়’ বলব না: ওয়াইসি

গত ১৩ অক্টোবর ছিল শুক্রবার। যে দিনটি আবার মুসলিম সম্প্রদায়ের অতি পবিত্র জুম্মাবার। সেই দিনেই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললেন রফিকুল মণ্ডল এবং আনোয়ায় মণ্ডলের মতো নেতারা। যারা বাগদা এলাকার মুসলিম সমাজের নেতা হিসেবে পরিচিত। বিজেপি নেত্রী বিভা মজুমদারের কথায়, “কয়েকজন মুসলিম নেতা মার বাড়িতে আসেন। তাঁরা নিজে থেকেই বিজেপিতে যোগ দেওয়ার বিষয়ে ইচ্ছাপ্রকাশ করেন। সেই অনুযায়ীই শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁদের হাতে আমি দলীয় পতাকা তুলে দিয়েছিলাম।” ভারতের সার্বিক উন্নতির জন্য বিজেপির বিকল্প নেই এবং বিজেপিই একমাত্র দল যারা মানুষের মধ্যে ধর্মীয় ভেদাভেদ করে না। এই কারণেই বাগদা এলাকার মুসলিমরা ভারতীয় জনতা পার্টির পতাকাতলে এসেছেন বলে দাবি করেছেন বিজেপি নেত্রী বিভা মজুমদার।

----
-----