পুজোর শেষ দিনটি উপভোগ করতে রাস্তায় জন সমূদ্র

সোয়েতা ভট্টাচার্য,কলকাতা– রাত পেরোলেই বলতে হবে আসছে বছর আবার হবে। হাতে আর মাত্র কিছু মূহুর্ত তার পরেই মন না চাইলেও মা কে বিদায় জানানোর পালা। তবে শেষ মূহুর্তগুলি কে উপভোগ করতে মানুষের ঢল দেখা যাচ্ছে মন্ডপে মন্ডপে। আনন্দটা কে চেটে পুটে উপভোগ করতে কতটা মরিয়া সকলে, সেই ছবি জেলা থেকে শহর সব পুজো মন্ডপই স্পষ্ট করে দিচ্ছে। নবমীতে বলা যেতে পারে রাস্তায় জন সমূদ্র প্রত্যক্ষ করল শহরবাসী।

উত্তর থেকঃ দক্ষিন সব পুজো মন্ডপেই নবমীতে ভিড় সামলাতে রীতি মতো হিমশিম খেতে হল পুজো উদ্যোক্তা ও পুলিশ প্রশাসন কে। দক্ষিন কলকাতার এক পুজো উদ্যোক্তা বলেন,”সপ্তমী অষ্ঠমীর থেকেও বেশী আমাদের পুজো মন্ডপে নবমীতে মানুষের ঢল নামল। এতটা ভিড় হবে আমরা নিজেরাও বুঝতে পারিনি।পুলিসের সঙ্গে আমাদের সদস্যরাও ভিড় সামলানোর চেষ্টা করছে। কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সেই কারনে মন্ডপে কম সংখ্যায় মানুষ ঢুকতে দিচ্ছি।আমাদের ভলেনটিয়াররা দড়ি দিয়ে আঁটকে বুঝে লোক ছাড়ছে। যাতে কোনও দুর্ঘটনা না ঘটে”।

অতিরিক্ত মানুষের ঢল নামার ফলে শহরের বিভিন্ন রাস্তায় জ্যাম দেখা যায়। পুজো পরিক্রমায় বেরিয়ে এক শহরবাসী বলেন,” আজকের দিনটা চলে গেলে আবার এক বছর অপেক্ষা করতে হবে। সেই কারনেই সকাল থেকে সপরিবারে আমরা পরিক্রমায় বেরিয়ে পরেছি।সারা দিন পরিক্রমার পরে এখন সারা রাত অন্য মন্ডপগুলি পরিক্রমা করার পরিকল্পনা করছি। আজ বাড়ি ফিরতে ইচ্ছে করছেনা।”

ইতিমধ্যেই বিষাদের হাওয়া ছড়িয়ে পরেছে আকাশে বাতাষে। না চাইলেও মন শক্ত করে এবার মা কে বিদায় জানানোর পালা ঘনিয়ে এল। তার সঙ্গে আবার সেই চেনা শব্দ শোনা যাবে মুখে মুখে-” আসছে বছর আবার হবে”।

----
-----