১৮ বছরের শিকারী জীবনে এটাই ভয়ঙ্করতম শিকার!

ফ্লোরিডা: কুমিরটাকে তুলে ধরতে একটা ক্রেন আনতে হয়েছিল৷ তারপর ছবি তোলা হল৷ সেটা দেখে চমকে গিয়েছে দুনিয়া৷ এটা কুমির না দৈত্য !

দৈত্যের মতই চেহারা৷ ৩৬০ কেজি ওজন৷ আর ১৫ ফুট লম্বা কুমিরটা দেখে যে কেউ ভিরমি খাবে৷ তুখোড় শিকারী লি লাইটসের বুকও কেঁপে গিয়েছিল৷ দক্ষিণ ফ্লোরিডার জলাভূমিতে দাপিয়ে বেড়াচ্ছিল রাক্ষসটা৷ বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরে ওটার খোঁজ করছিলাম৷ হাতের নাগালে পেয়ে অবশেষে খতম করেছি৷ জানিয়েছেন শিকারী লি৷ তাঁর ১৮ বছরের শিকারী জীবনে এই প্রথম এত ভয়ঙ্কর কুমিরের মুখোমুখি হওয়া৷ বিশালাকার প্রাণীটাকে মেরে তিনি এখন হিরো৷ ফ্লোরিডার জলা জঙ্গলে শিকারীদের জন্য একটা ফার্ম করেছেন লি লাইটস৷ অনেকেই শেখানে শিকার করতে আসেন৷ বেশ কয়েকদিন ধরেই বিশালকার কুমিরটা তাঁর ফার্মে হানা দিয় খোঁয়াড়ে থাকা প্রাণীদের সাবড়ে দিচ্ছিল৷ জলাভূমির বিভিন্ন এলাকায় সেই কুমিরটার সন্ধান করছিলেন লি ও তাঁর বন্ধু৷ হঠাৎ হাতের নাগালে চলে এসেছিল রাক্ষসটা৷ হারপুন দিয়ে সেটাকে মারা সম্ভব হয়েছে৷ কুমিরটাকে তুলে আনতে একটা ক্রেন লেগেছে৷

১৯৮৮ সাল থেকে অন্তত ৫ হাজার কুমিরকে পরলোকে পাঠানো শিকারী লি-র এটা সবথেকে বড় সাফল্য৷ তাঁর ইচ্ছে ৩৬০ কেজি ওজনের কুমিরটার দেহ সংরক্ষণ করে ফার্মে রাখা৷

Advertisement
---