বোরখার আড়ালে লুকিয়ে প্রাক্তন স্ত্রীর সঙ্গে দুঃসাহসিক কাণ্ড ঘটালেন স্বামী

স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি: ‌ফিল্মি কায়দায় বোরখা পরে বোবা সেজে আগের পক্ষের স্ত্রীকে অপহরণের চেষ্টা স্বামীর। হাতে নাতে ধরা পড়ে গ্রামবাসীদের কাছে স্বামীর জুটল গণপ্রহার। ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায় বীরভূমের সিউড়ি থানার ইটাগরিয়া গ্রামে। ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে অভিযুক্ত স্বামীকে আটক করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বছর দুয়েক আগে বীরভূমের সাঁইথিয়া থানার মাটপলসা গ্রামের বাসিন্দা রেজিয়া বিবির সঙ্গে পার্শ্ববর্তী আলুন্দা গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল্লার বিয়ে হয়। আব্দুল্লা বিয়ের কিছুদিন পরেই তাঁর স্ত্রীর অশ্লীল ছবি ইন্টারনেটে ভাইরাল করে দেয়৷

আরও পড়ুন: ঋণের জন্য ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হলেন এক মহিলা ব্যবসায়ী

- Advertisement -

তার প্রতিবাদ করে স্ত্রী৷ গ্রামের একটি সভা করে তাদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ করিয়ে দেওয়া হয়৷ এরপর থেকে তাদের মধ্যে কোনও সম্পর্ক ছিল না।

স্থানীয় সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, শুক্রবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ রেজিয়া সিউড়ি আসার উদ্দেশ্যে​মাটপলসা বাসস্ট্যান্ডে অপেক্ষা করছিল। এমন সময় একটি মারুতি গাড়ি তাকে লিফট দেওয়া নাম করে গাড়িতে তোলে। তখন গাড়ির ভিতরে চালক ও বোরখা পড়ে বোবা মহিলা সেজে আব্দুল্লা বসেছিল।

বোরখা পরা এক বোবা মহিলাকে দেখে রেজিয়া নিজেকে সুরক্ষিত বোধ করে৷ গাড়িতে চড়ে তিনি বুঝতেও পারেনি ওই বোবা মহিলা আসলে তার প্রাক্তন স্বামী। গাড়ি কিছুটা রাস্তা যাওয়ার পরে বোরখার আড়ালে লুকিয়ে থাকা আব্দুল্লা নিজের আসল রূপ দেখায়।

আরও পড়ুন: টলিউডের পাঁচ নায়িকার সঙ্গে লড়াইয়ে একা শ্রাবন্তী!

গাড়ির ভিতরেই রিজিয়াকে বেধড়ক মারধর করতে শুরু করে। তার গলা টিপে রাখা হয় যাতে তিনি কোনওভাবে চিৎকার না করতে পারে। কিন্তু তার আর্তনাদ স্থানীয় গ্রামবাসীরা শুনতে পায়। এরপরই গ্রামবাসীরা গাড়িটির পিছনে ধাওয়া করে গাড়িটিকে ধরে ফেলে।

রেজিয়ার কাছে পুরো ঘটনা জানার পর ক্ষিপ্ত জনতা আব্দুল্লা উপর চড়াও হয়৷ তাকে বেধড়ক মারধর করতে শুরু করে তাঁরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ৷ তাঁরা আব্দুল্লাকে ক্ষিপ্ত জনতার হাত থেকে উদ্ধার করে৷ তারপর সেখান থেকে তাকে আটক করে নিয়ে যায়।

আরও পড়ুন: ১৮ বছর পর সংসদে ফের কাজে মন দিলেন সাংসদরা

গ্রামবাসীদের দাবি, পুরনো আক্রোশের জেরেই আব্দুল্লা শুক্রবার তাঁকে অপহরণ করার চেষ্টা করে৷ যদিও গ্রামবাসীরা তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে।

এই বিষয়ে রেজিয়ার পরিবারের এক আত্মীয় শেখ শাহজাহান জানান, বছর দুয়েক আগে তাদের বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু আব্দুল্লা অশ্লীল আচরণের জন্য তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়।

শুক্রবার তাঁকে লিফট দেওয়ার নাম করে পরিকল্পিতভাবে অপহরণ করার চেষ্টা করে। কিন্তু গ্রামবাসীরা ধরে ফেলায় এই যাত্রায় রেজিয়া বেঁচে গেল। আব্দুল্লার উপযুক্ত শাস্তি চাই৷

আরও পড়ুন: কোচিং সেন্টারে ছাত্রীকে একা পেয়ে জানেন কি করলেন শিক্ষক?

Advertisement ---
---
-----