স্ত্রীর পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় স্বামীকে খুনের চেষ্টা

স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে বুঝতে পেরে প্রতিবাদ করেন স্বামী৷ কিন্তু তার পরিবর্তে শ্যালকের হাতে গুরুতর ভাবে জখম হতে হল জামাইবাবুকে৷ আহত ব্যাক্তির নাম মদন দাস৷ অভিযুক্ত বিপ্লব দাস৷ ঘটনাটি ঘটেছে মালদহ থানার মুচিয়া এলাকায়৷ ঘটনার জেরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় গোটা এলাকায়৷

অভিযোগ, মদনবাবু এই ঘটনার প্রতিবাদ জানালে শ্যালক এসে তার উপর হামলা করে৷ এমনকি প্রকাশ্য রাস্তায় মাথায় বোতল ভেঙে খুনের চেষ্টাও করে অভিযুক্ত।

আরও পড়ুন: অনলাইনে হতাশা মুক্তির উপায় এবার হাতের মুঠোয়

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন ধরেই তাঁর স্ত্রীর সঙ্গে এক দুধ বিক্রেতা উৎপল ঘোষের অবৈধ সম্পর্ক তৈরি হয়। এই নিয়ে স্বামী প্রতিবাদ করলে তাঁর স্ত্রীর সঙ্গে বচসা বাঁধে। স্ত্রী রাগ করে বাবার বাড়িতে চলে যায়।

এরপর সোমবার সকালে মদনবাবু বাড়ির কাছে একটি বাজারের মধ্যে দাঁড়িয়ে ছিলেন। অভিযোগ, সেই সময় তাঁর শ্যালক বিপ্লব দাস আচমকা তাঁর উপর হামলা চালায়৷ মাথায় কাঁচের বোতল ভেঙে তাঁকে খুনের চেষ্টা করতেও পিছু পা হয়নি অভিযুক্ত বিপ্লব। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে স্থানীয় দোকানদাররা মদনবাবুকে কোনরকমে উদ্ধার করে৷ প্রথমে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হলে আঘাত গুরুতর থাকার কারণে তাঁকে মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

আরও পড়ুন: বাবা-মায়ের বকুনিতে অভিমানে আত্মঘাতী ছেলে

গোটা ঘটনা বিস্তারিত জানানো হয় মালদহ থানার পুলিস৷ খবর পেয়ে পুলিশ তদন্ত শুরু করে৷ এদিকে ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত শ্যালক, স্ত্রী ও শ্বশুরবাড়ির লোকেরা গা-ঢাকা দিয়েছে বলে অনুমান পুলিশের। মদন দাসের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্তে নেমেছে মালদহ থানার পুলিশ।

আরও পড়ুন: ”এটাই মোদীর নতুন হিংসাত্মক ভারত”

Advertisement
-----