কেরলে আটকে স্বামী, ফিরিয়ে আনার আর্জি প্রশাসনকে

স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: বন্যা বিপর্যস্ত কেরলে আটকে পড়া বাঙালিদের মধ্যে একজন গঙ্গাধর মণ্ডল৷ গঙ্গাধরের অপেক্ষায় দুই সন্তান নিয়ে বড্ড অসহায় স্ত্রী ঝুম্পা মণ্ডল৷ কয়েকদিন আগে জলবন্দি হয়ে আছেন বলে জানান গঙ্গাধর৷ তারপর আর খোঁজ নেই তাঁর৷ বাঁকুড়ার ছাতনা এলাকায় বাস গঙ্গাধরের৷ তাঁর গ্রাম লোহাগড় এখন দুশ্চিন্তার গ্রাসে৷

গ্রামে সেরকম কোনও কাজ নেই৷ তাই, কয়েক মাস আগে একপ্রকারের বাধ্য হয়ে জীবিকার সন্ধানে কেরলে পারি দেয় গঙ্গাধর মণ্ডল৷ ওখানে পৌঁছে আদিমালী ইদুকি জেলার কুম্পানপাড়া গ্রামে ঠিকাদারি সংস্থার অধীনে একটি বাগানে কাজও জুটিয়ে নিয়েছিলেন তিনি। তারপর বাড়িতে নিয়মিত টাকা পাঠানো থেকে ফোনে খোঁজখবর নেওয়া। সব ঠিকঠাকই চলছিল। কিন্তু সব ওলট-পালট করে দেয় কেরলের সাম্প্রতিক বন্যা৷ আরও অনেকের সঙ্গে কেরলে জলবন্দি হয়ে পড়েন শ্রমিক গঙ্গাধর মণ্ডলও।

পড়ুন:কেরলের পাশে শহরের দুর্গাপুজোর উদ্যোক্তারা

- Advertisement -

গঙ্গাধর মণ্ডলের পরিবার সূত্রে খবর, আদিমালী ইদুকি জেলার কুম্পানপাড়া গ্রামের ওই বাগানে তিনি একাই রয়েছেন। কয়েক দিন আগে কোনও রকমে মাত্র একবার টেলিফোনে যোগাযোগ করা গিয়েছিল। তখন তিনি জানিয়েছিলেন, এক কাপড়ে প্রায় অভুক্ত অবস্থায় জলবন্দি জীবন কাটছে তাঁর। তারপর থেকে গঙ্গাধরের সঙ্গে আর ফোনে যোগাযোগ করা যায়নি । এই অবস্থায় পরিবারের একমাত্র রোজগেরে মানুষটির কিভাবে দিন কাটছে? তা ভেবেই কূল কিনারা করতে পারছে না ছাতনার লোহাগড় গ্রামের মণ্ডল পরিবার। শুধু চাইছেন, যেভাবে হোক তাদের বাড়ির ছেলেকে কেরল থেকে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করুক প্রশাসন।

Advertisement ---
-----