ব্লাড মুনের রাতেই বাড়ির ছাদে মিলল তিন মাসের শিশুর কাটা মুণ্ডু

হায়দরাবাদ: ৩১ জানুয়ারি বিশ্ব জুড়ে আকাশে দেখা গিয়েছিল এক বিশাল আকারের চাঁদ। শুধু আকারেই বড় নয়, এটা ছিল ‘সুপার ব্লু ব্লাড মুন’। আর সেই রাতেই বাড়ির ছাদ থেকে উদ্ধার হল এক তিন মাসের শিশুর কাটা মুণ্ডু। কুসংস্কারের কোপেই ওই শিশুকে হত্যা করা হয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে। হায়দরাবাদের ঘটনা।

সুপারমুনের পরই সামনে এসেছে হায়দরাবাদের এই নৃশংস খুনের ঘটনা। তিন মাসের শিশুর কাটা মুণ্ডু উদ্ধার হয়েছে। পুলিশের সন্দেহ, তান্ত্রিক বা কুংসস্কারে বিশ্বাসের কারণেই এই জঘন্য এবং নারকীয় কাণ্ড ঘটানো হয়েছে। যদিও এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ।

গোটা ঘটনাটির তদন্ত চলছে। পুলিশ আধিকারিকরা জানিয়েছেন, গত ৩১ জানুয়ারি গোটা ভারত সাক্ষী থেকেছে ‘সুপার ব্লাড ব্লু মুন’-এর। সেই সঙ্গে ওদিন ছিল পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণও। আর তার পরদিন অর্থাত্‍ গত ১ ফেব্রুয়ারি চিলকানগর জেলার একটি বাড়ির ছাদ থেকে ওই তিন মাসের শিশুর কাটা মুণ্ডু উদ্ধার হয়েছে। কোনও ধারালো ছুরি দিয়ে এই নারকীয় কাণ্ড ঘটানো হয়েছে। শিশুটির দেহ এখনও খুঁজে পায়নি পুলিশ। তাঁদের ধারনা, কুসংস্কার বা তন্ত্র সাধনার জন্য নরবলি দেওয়ার জন্য শিশুটিকে খুন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে গোটা এলাকায় ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য।

Advertisement
----
-----