নয়াদিল্লি : পলাতক ঘোষণার হওয়ার পর অনেক জল গড়িয়েছে৷ দেশে ফিরবেন না বলে জানিয়েও দিয়েছেন৷
তবে এই প্রথম কোনও জাতীয় সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাতকার দিলেন পলাতক হিরে ব্যবসায়ী মেহুল চোকসি৷ হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাতকারে তিনি কথা বললেন দেশে প্রত্যাবর্তন না করা ও তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ নিয়ে৷

তছরূপের দায়ে অভিযুক্ত৷ আর তার ওপর বিদেশে বহাল তবিয়তে ঘুরে বেড়ানোর অভিযোগ ওঠে পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের লক্ষ কোটি টাকার প্রতারণার অন্যতম কর্ণধার মেহুল চোকসির বিরুদ্ধে৷ অ্যান্টিগুয়ার স্থানীয় পাসপোর্ট নিয়ে তিনি আরামে দিন কাটাচ্ছেন বলে জানা যায়৷ তবে সেই দাবি খণ্ডন করলেন তিনি৷

ফোনে ও লিখিত উত্তরের মাধ্যমে পরিস্কার জানালেন দেশে ৪ হাজারেরও বেশি শাখা রয়েছে তাঁর কোম্পানির৷ কোথাও না কোথাও কোনও আইনী ও আর্থিক গাফিলতি হয়েছে৷ যার দায়ভার তাঁকে বয়ে নিতে বেড়াতে হচ্ছে৷ এরআগে, তাঁর বিরুদ্ধে কোনও অপরাধমূলক অভিযোগ ছিল না৷ কিন্তু এই ঘটনায় তিনি প্রত্যক্ষ ভাবে জড়িত নন বলে দাবি করেন তিনি৷

পড়ুন: আপনি ঋণ পাবেন কিনা, বলে দেবে PayTM

তাঁর আরও দাবি ১৫০টিরও বেশি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেয়েছেন৷ নিজের ভাবমূর্তি কেন নষ্ট করবেন তিনি? প্রশ্ন করেছেন মেহুল চোকসি৷ পাশাপাশি, তিনি জানিয়েদেন, দেশ ছেড়ে পালাননি তিনি৷ হৃদরোগের চিকিৎসার জন্য তাঁকে বিদেশে আসতে হয়েছিল৷ যখন তিনি বিদেশে চিকিৎসাধীন, তখনই পিএনবির আর্থিক কেলেঙ্কারির কথা জানতে পারেন৷ তার আগে এ ব্যাপারে লেশমাত্র ধারণা তাঁর ছিল না বলে দাবি করেছেন এই ব্যবসায়ী৷ তিনি দাবি করেন তাঁর পাসপোর্ট নেই৷ ভারতে ফেরার সুযোগে তাই নেই তাঁর কাছে৷ এই সুযোগেই তাঁকে পলাতক বলে ঘোষণা করা হয়েছে৷

তাছাড়া ভারতে যদি তাঁর যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়, তবে নিশ্চয়ই দেশে ফিরবেন তিনি বলে জানিয়েছেন এই অভিযুক্ত৷

তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা খারিজ করতে হবে বলে দাবি করেন তিনি৷ অবশ্য এর পিছনে যুক্তিও দেখান মেহুল৷ তার দাবি দেশে ক্রমশ বাড়ছে গণপিটুনির ঘটনা৷ তার আশঙ্কা, দেশে ফিরলে তাকেও সেই পরিস্থিতির শিকার হতে হবে৷ গত এপ্রিল ও মে মাসে তাঁর বিরুদ্ধে জারি করা ২টি জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা খারিজের আরজি জানান তিনি৷ এই দাবি অবশ্য আগেও করেছিলেন মেহুল চোকসি৷

এর আগে, আদালত জানায় ২৫ শে সেপ্টেম্বর নীরব মোদীকে ও ২৬ শে সেপ্টেম্বর মেহুল চোকসিকে হাজিরা দিতে হবে বিশেষ পিএমএলএ কোর্টে৷ তবে এর মাসের মাঝামাঝি সময়ে গীতাঞ্জলী জেমসের কর্ণধার আজব দাবি করেন৷ এর আগে, ১১ হাজার ৪০০ কোটির টাকার জালিয়াতিতে অভিযুক্ত হীরে ব্যবসায়ী মেহুল চোকসি এক ই-মেল বার্তায় সাফ জানিয়ে দেন এই মুহূর্তে ঋণ শোধ করার মতো পরিস্থিতি তার নেই৷

----
--