ইমরানের উল্টো পথে হেঁটে পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার নিন্দায় পাক মহিলারা

ইসলামাবাদ: ‘আমি পাকিস্তানি৷ আমি পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার নিন্দা করছি৷’

দেশের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান পুলওয়ামার ভয়াবহ জঙ্গি হামলা নিয়ে একটি শব্দও ব্যয় করেননি৷ না তো শহিদ পরিবারদের জন্য পাঠিয়েছেন কোনও শোক বার্তা৷ অথচ তারই দেশ থেকে পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার নিন্দায় সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয়েছেন মহিলারা৷ হাতে একটা প্ল্যাকার্ড৷ তাতে লেখা, ‘আমি পাকিস্তানি৷ আমি পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার নিন্দা করছি৷’

পুলওয়ামার হামলার পর ভারত-পাক সম্পর্ক ঘুরে দাঁড়ানোর চিন্তাও এখন অলীক৷ রাজনৈতিক, কূটনৈতিক, ক্রীড়া ও বিনোদন সব ক্ষেত্রেই পাকিস্তানকে বর্জন করার আওয়াজ উঠেছে৷ প্রতিদিনই একে অপরের সঙ্গে বাকযুদ্ধে জড়াচ্ছেন দুই দেশের রাজনীতিবিদরা৷ ছড়াচ্ছে ঘৃণা, বিদ্বেষ, রাগ৷ এই রকম এক সময়ে সীমান্তের ওপারের দেশে সোশ্যাল মিডিয়ায় নয়া আন্দোলন জন্ম নিয়েছে৷ অ্যান্টি হেট চ্যালেঞ্জ নামে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই আন্দোলন শুরু করেছেন পাক সাংবাদিক সেয়র মির্জা৷ আন্দোলনের উদ্দেশ্য যুদ্ধ ও সন্ত্রাসের পথ ছেড়ে দুই দেশের মধ্যে বাড়তে থাকা উত্তেজনায় জল ঢেলে শাস্তি স্থাপন করা৷

- Advertisement -

গত বৃহস্পতিবারের কাশ্মীরে সিআরপিএফের কনভয়ের উপর জঙ্গি হামলার এক সপ্তাহ পূরণ হতে চলেছে৷ তারপর সোশ্যাল মিডিয়ায় পাকিস্তানিদের প্রতি ভারতের পাশে থাকার আবেদন জানিয়েছেন মির্জা৷ সেই সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় শান্তি প্রচারে অংশ নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন তিনি৷

শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দিতে ফেসবুকে আবেগপ্রবণ লেখা লিখেছেন৷ মির্জা লেখেন, জঙ্গি হানায় কাশ্মীরের নিরীহ মানুষের নিহতের ঘটনা অত্যন্ত নিন্দনীয়৷ এমন পরিস্থিতিতে আমাদের যুদ্ধ ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কথা বলা উচিত৷ আমরা পুলওয়ামার ঘটনার নিন্দা করছি৷ ভারতের আমাদের অনেক বন্ধু আছে৷ তাদের পাশে আছি৷