চিনকে টেক্কা দেওয়ার মতো অস্ত্র রয়েছে ভারতের

নয়াদিল্লি: ভারতের কাছে যা অস্ত্র রয়েছে, তার সাহায্যে খুব সহজে ঘায়েল করা যাবে চিনকে৷ জানিয়েছেন ভারতীয় বায়ুসেনা প্রধান এয়ার মার্শাল বীরেন্দ্র ধনওয়া৷ হালওয়াড়া এয়ার ফোর্স স্টেশনে একথা বলেন তিনি৷ সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দও৷ সেখানে ধনওয়া বলেন, দেশের নিরাপত্তার জন্য যে কোনও চ্যালেঞ্জ নিতে তৈরি ভারতীয় বায়ুসেনা৷

গত বছর এয়ার মার্শাল বলেছিলেন, কম সময়ের নোটিশে যাতে যুদ্ধ করছে, তার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারতীয় বায়ুসেনা৷ প্রতিরক্ষা সম্পর্কিত বাজেট নিয়ে যখন কথা হয়, তিনি বলেন বাজেটের বিষয়টি তাঁরা সম্পূর্ণভাবে সরকারের উপর ছেড়ে দিয়েছেন৷ এনিয়ে বায়ুসেনার তরফ থেকে তাঁর কিছু বলার নেই৷

ভারতীয় বায়ুসেনা ইতিমধ্যেই যুদ্ধের জন্য ৩১টি স্কোয়াড্রন কিনেছে৷ আরও স্কোয়াড্রন কেনার আশা রয়েছে৷ কারণ বায়ুসেনার জন্য ৪২টি স্কোয়াড্রন অনুমোদন করা হয়েছে৷

কিছুদিন আগেই জানা গিয়েছিল, বেসরকারি প্রতিরক্ষা সংস্থায় তৈরি হবে ২৫০ টি ফাইটার জেট৷ কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়, ১০০টি সিঙ্গল ইঞ্জিন ফাইটার জেট তৈরি বে ভারতে৷ এছাড়া ৯০টি ডবল ইঞ্জিন ফাইটার জেট তৈরি হবে৷ সরকারি সূত্রে খবর, ১৪টি ফাইটার স্কোয়াড্রনের ক্ষমতা অনেকাংশে কমে যেতে চলেছে৷ কারণ আগামী ১০বছরের মধ্যেই মিগ২১, মিগ২৭, মিগ২৯ স্কোয়াড্রন থেকে সরে যেতে চলেছে৷ যে কারণে ২০২৭র মধ্যে ৩৩ থেকে ১৯এ নেমে যাবে স্কোয়াড্রনের শক্তি৷ শুধু তাই নয়৷ ২০৩২ এ স্কোয়াড্রনের ক্ষমতা আরও কমে ১৬তে হয়ে যেতে পারে৷ সেই কারণেই প্রতিরক্ষা বিভাগকে শক্তিশালী করতে এয়ারক্রাফ্ট কিনে আগে ভাগেই স্কোয়াড্রন আরও শক্তিশালী করছে ভারত৷ প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, আগামী পাঁচ মাসের মধ্যেই ভারতের হাতে আসতে চলেছে তেজস৷ ৮৩টি তেজসের মধ্যে ১০টি ট্রেনিংয়ের জন্য ব্যবহার করা হবে৷

Advertisement
----
-----