নয়াদিল্লিঃ   যে কোনও মুহূর্তে চিন-পাকিস্তানের আক্রমণের হাত থেকে ভারতীয় ভুখন্ডকে রক্ষা করতে মরিয়া সেনাবাহিনী।  আর সেজন্যে চারপাশ থেকে সুরক্ষা কবচ তৈরি করছে সেনাবাহিনী।  আর সেই লক্ষ্যেই এবার পাকিস্তান এবং চিন সীমান্তে রাফায়েল মোতায়েন করতে চলেছে ভারতীয় বায়ুসেনা।  প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, একটি রাফায়েল স্কোয়াড্রোন মোতায়েন হবে আম্বালায়।  যেটি পাকিস্তান সীমান্তের খুব কাছে অবস্থিত।

অন্যদিকে, ১৮ এয়ারক্রাফটের আরও একটি রাফায়েলের স্কোয়াড্রোন থাকবে পশ্চিমবঙ্গের হাসিমারা এয়ারবেসে।  যেটি চিন সীমান্তের খুব কাছেই অবস্থিত।  ফলে, চিন কিংবা পাকিস্তান যে কোনও সীমান্ত দিয়ে যদি হামলা করে তাহলে যাতে দ্রুত রাফায়েলের মতো যুদ্ধবিমান পাঠানো সম্ভব হয় সেজন্যেই এই সিদ্ধান্ত বায়ুসেনার।  যদিও এই সিদ্ধান্ত কার্যকরী করতে এখনও বেশ কিছুটা ধৈর্য ধরতে হবে বায়ুসেনাকে।

প্রসঙ্গত, গত সেপ্টেম্বর মাসেই ৩৬টি রাফায়েল কিনতে চেয়ে ফ্রান্সের সঙ্গে চুক্তি সারে ভারত।  রাফায়েল ভারতের হাতে চলে আসলে সূত্রের খবর, আরও বেশ কয়েকতি রাফায়েল কিনতে পারে ভারত।  আর সেটা কার্যকর হলে ২০২১ সালের মধ্যে বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশগুলির সমকক্ষ হয়ে উঠবে ভারতীয় বায়ুসেনা।  পূর্ণ শক্তিতে শত্রুর যে কোনও জায়গায় আঘাত হানতে পারবে সেনাবাহিনী।

এই মুহূর্তে ভারতীয় বায়ুসেনার অন্তত ৪০টি যুদ্ধবিমানের স্কোয়াড্রোন প্রয়োজন।  ইতিমধ্যে এই বিষয়টি জানানো হয়েছে কেন্দ্রকে।  আর এই তথ্য হাতে পাওয়ার পরেই রাফায়েলের মতো আধুনিক আরও যুদ্ধ বিমান কিনতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার।  আর তা হাতে চলে আসলেই হঠাত করে যদি চিন এবং পাকিস্তান দুই দেশই হামলা করে তা সহজেই ঠান্ডা করতে পারবে সেনাবাহিনী।

----
--