ভুয়ো খবর ইস্যুতে পিছু হটল মোদী সরকার

নয়াদিল্লি: ভুয়ো খবর নিয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের নির্দেশিকা প্রত্যাহার করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ভুয়ো খবর নিয়ে স্মৃতি ইরানি এক নির্দেশিকা দেওয়ার পর তা নিয়ে আলোড়ন শুরু হয়ে যায়। সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। এরপরই ওই বিজ্ঞপ্তি তুলে নেওয়ার কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফে বলা হয়, ভুয়ো খবর সংক্রান্ত বিষয়ে কোনও নির্দেশিকা জারি করবে কেবলমাত্র ‘প্রেস কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া।’ সোমবার তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বলা হয়, ভুয়ো খবর সম্প্রচারে সাংবাদিকদের স্বীকৃতি চিরজীবনের জন্য বাতিল করে দেওয়া হতে পারে৷ এই ভুয়ো খবরের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ পাওয়া গেলে, যদি সেটি প্রিন্ট মিডিয়া হয় তাহলে প্রেস কাউন্সিল অব ইন্ডিয়া এবং ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া হলে নিউজ ব্রডকাস্টর্স অ্যাসোসিয়েশনকে তা পাঠানো হবে৷ এই সংস্থাগুলি সিদ্ধান্ত নিয়ে জানাবে যে সেই সংবাদ আদৌ ভুয়ো কি না৷

এর ফলে যাতে কোনও সাংবাদিককে বেশি সমস্যায় না পড়তে হয় তার জন্য, ১৫ দিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত জানাবে দুই সংস্থা৷

- Advertisement -

সরকারের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে বিরোধিতা শুরু হয়ে যায় বিভিন্ন মহলে৷ সাংবাদিকদের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের মতো অভিযোগও উঠে আসে৷ পরে অবশ্য, তবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি একটি ট্যুইট করেন এই ইস্যুতে, সরকার ফেক নিউজের বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নিচ্ছে না, যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার এনবিএ এবং পিসিআই নেবে৷

Advertisement ---
---
-----