বাংলায় দাঙ্গা করতে এলে বিজেপির রথ গুঁড়িয়ে দেবো: শতরূপ

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বাংলার রাজনীতিতে গরগারম বক্তব্য রাখার ট্রেন্ড অনেকদিন ঢুকে পড়েছে৷ তৃণমূলের অনুব্রত মন্ডল কিংবা বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এই বিষয়ে যুগ্মভাবেই প্রথমস্থানে রয়েছেন বলে বিশেষজ্ঞদের মত৷ এবার এই তালিকায় নাম লেখালেন ডিওয়াইএফআই-এর রাজ্য কমিটির সদস্য শতরূপ ঘোষ৷

বিজেপির রথযাত্র প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘আমরা তৃণমূলের মতো বিজেপির রথের সামনে খোল করতাল বাজাবো না৷ বিজেপির রথ বাংলায় দাঙ্গা করতে এলে রথের চাকা ভেঙ্গে গুড়িয়ে মাটিতে পুঁতে দেবো৷’’

বাংলায় চিরদিনই হিন্দু-মুসলিমরা সম্প্রীতির সঙ্গে সহাবস্থান করছে৷ বিজেপির রথ এই সম্প্রীতিকে নষ্টকে সাম্প্রদায়িক মেরুকরণ করবে৷ তাই যে সব জায়গার উপর দিয়ে বিজেপির রথ যাওয়ার কথা রয়েছে সেখানের মানুষকে বোঝাচ্ছেন তাঁরা৷ এমনটাই জানান তরুণ বাম নেতা শতরূপ ঘোষ৷

- Advertisement -

কোচবিহারে থেকে রথযাত্রা শুরু করার কথা ছিল বিজেপির৷ সম্প্রতি কোচবিহার থেকে সভা করে এসেছেন শতরূপ৷ রথযাত্রার আগে তাঁর কোচবিহার যাওয়া নিয়ে শতরূপের বক্তব্য, আমরা সাধারণ মানুষকে বোঝাতে চাই যাতে তারা বিজেপির ফাঁদে পা না দেয়৷ সাম্প্রদায়িকে অশান্তিতে জড়িয়ে না পড়ে৷ চাকরি, রান্নার গ্যাস থেকে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম কমানোর মতো বিষয়গুলি থেকে মানুষের নজর ঘোরানোর জন্যই এই সব রথযাত্রা নাটক করা হচ্ছে৷ বিজেপি রথ চালালো আর অশান্তি ছড়িয়ে চলে গেল! এরকমটা যাতে না হয়৷ ওরা রথ নিয়ে পথে নামলে যাতে মানুষ ওদের প্রশ্ন করে ১৫ লাখ কোথায় গেল? কালোটাকা কোথায় গেল? দু’কোটি বেকারের চাকরি কোথায়?

ডিওয়াইএফআই এর রাজ্য কমিটির সদস্য শতরূপের বক্তব্য বিজেপি বাবরি নিয়ে বলতে এলে মানুষ এদের চাকরি নিয়ে প্রশ্ন করবে৷ কোচবিহার ছাড়াও দিনহাটা, ময়নাগুড়িতেও গিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলেন শতরূপ৷ আগামীদিনে জলপাইগুড়িতে গিয়েও সভা করার কথা রয়েছে সিপিএমের এই তরুণ তুর্কির৷